মেহুল চোক্সি। ছবি: নিউজ১৮

ওয়েবডেস্ক: মুম্বই পুলিশ এবং ভারতের বিদেশমন্ত্রকের ছাড়পত্রের পরেই পলাতক ব্যবসায়ী মেহুল চোক্সিকে তাদের দেশের নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছে। এমন কথা সাফ জানিয়ে দিল অ্যান্টিগা প্রশাসন।

তবে প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, নাগরিকত্ব দেওয়ার সময়ে তাঁর ব্যাপারে যাবতীয় পরীক্ষা করা হয়েছিল। সেখানে জানা গিয়েছিল, যে তাঁর বিরুদ্ধে দু’বার তদন্ত শুরু করেছিল সেবি। কিন্তু যখন নাগরিকত্ব দেওয়া হয় তখন সেই তদন্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়।

মেহুল চোক্সির নাগরিকত্বের ব্যাপারে অ্যান্টিগা প্রশাসনের দেওয়া বিবৃতি থেকে জানা গিয়েছে যে গত বছর মে মাসে নাগরিকত্বের আবেদন করেছিলেন চোক্সি। প্রয়োজনীয় নথিপত্র এবং পুলিশের ছাড়পত্র দেখেই তাঁকে নাগরিকত্ব দিয়েছিল সে দেশ।

আরও পড়ুন শীর্ষ আদালতের তিরস্কারের পর সোশ্যাল মিডিয়ার ওপরে নজরদারির পরিকল্পনা বাতিল কেন্দ্রের

বিবৃতিতে বলা হয়, “পুলিশ এবং মুম্বইয়ের আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস থেকে মেহুল চোক্সিকে যে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে তা খতিয়ে দেখে আমরা বুঝতে পারি যে তাঁর বিরুদ্ধে এমন কোনো অভিযোগ নেই, যা আমাদের দেশের নাগরিক হওয়া থেকে তাকে আটকাতে পারে।”

এর পরে নভেম্বরে সরকারি ভাবে সে দেশের নাগরিক হয়ে যান চোক্সি। জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই ভারত থেকে পালিয়ে যান তিনি এবং ১৫ জানুয়ারি অ্যান্টিগার নাগরিক হিসেবে শপথ নেন। ২৯ জানুয়ারি পিএনবি কাণ্ডে নীরব মোদীর সঙ্গে নাম জড়ায় চোক্সির।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here