মেহুল চোক্সি। ছবি: নিউজ১৮

ওয়েবডেস্ক: তিনি কোনো দোষ করেননি। তাঁকে ফাঁসানো হয়েছে। এ ভাবেই আত্মপক্ষ সমর্থনের চেষ্টা করলেন পিএনবি কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত মেহুল চোকসি। অ্যান্টিগায় নিজের নতুন বাসস্থান থেকে এই প্রথম সংবাদমাধ্যমের সামনে এলেন তিনি।

সংবাদসংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে চোকসি বলেন, “আমার সম্পত্তি বেআইনি ভাবে বাজেয়াপ্ত করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টোরেট। আমাকে ফাঁসানো হয়েছে। আমি কোনো দোষ করিনি।”

গত বছর চোকসিকে নাগরিকত্ব দেয় অ্যান্টিগা। এ বছর ১৫ জানুয়ারি সে দেশের নাগরিক হয়ে যান তিনি। তাঁর দাবি, তাঁর পাসপোর্ট বাতিল করে দেওয়া হয়েছে বলে তিনি কোথাও যেতে পারছেন না। তিনি বলেন, “১৬ ফেব্রুয়ারি মুম্বইয়ের আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস থেকে আমাকে ই-মেলে জানানো হয় যে নিরাপত্তার জন্য আমার পাসপোর্ট বাতিল করে দেওয়া হয়। ২০ তারিখ আমি পাসপোর্ট অফিসে মেল করে বলি আমার পাসপোর্ট আবার চালু করে দিতে। কিন্তু তারা আমাকে কোনো জবাব দেয়নি।”

আরও পড়ুন পিএনবি কাণ্ডে আরও একজনের বিরুদ্ধে রেড কর্নার জারি ইন্টারপোলের

পিএনবি কাণ্ডে নীরব মোদীর মতোই পলাতক মেহুল। নীরবের বিরুদ্ধে ইন্টারপোল নোটিশ জারি করলেও বারবার আবেদন করা সত্ত্বেও মেহুলের বিরুদ্ধে নোটিশ জারি করা যাচ্ছে না। অন্য দিকে মঙ্গলবারই নীরবের বোন পুর্বীর বিরুদ্ধেও নোটিশ জারি করেছে ইন্টারপোল।

 

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন