চেন্নাই: টানা তিন দিন জেরার পর অবশেষে গ্রেফতার করা হল শশীকলার ভাইপো দিনকরণকে। এই খবর ছড়িয়ে পড়া মাত্রই চেন্নাইয়ে এআইএডিএমকের হেড কোয়ার্টারে শশীকলার সব পোস্টার খুলে ফেলেছে এআইএডিএমকের সমর্থকরা। এর ফলে আরও জোরালো হল শশীকলা শিবির এবং পনিরসেলভমের শিবিরের মিশে যাওয়া।

দলীয় প্রতীক ‘জোড়া পাতা’ নিজেদের শিবিরের হস্তগত করার জন্য নির্বাচন কমিশনের আধিকারিককে ঘুষ দেওয়ার অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে দিনকরণকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ। শশীকলা জেলে যাওয়ার সময়ে দিনকরণকে তাঁদের শিবিরের ডেপুটি জেনারেল সেক্রেটারি করে দিয়ে গিয়েছিলেন।

ইতিমধ্যেই শশীকলার শিবির থেকে দাবি করা হয়েছে, যে দু’পক্ষের মিশে যাওয়ার রাস্তা প্রশস্ত করতে শশীকলা এবং দিনকরণ দু’জনকেই বহিষ্কার করা হবে দল থেকে। পার্টি অফিস থেকে এ দিন যে পোস্টার খুলে ফেলা হয়েছে সেটাও পনিরসেলভম শিবিরের দাবি মেনেই করা হয়েছে বলে খবর।

উল্লেখ্য, জয়ললিতার মৃত্যুর পর দুই শিবিরে ভাগ হয়ে যায় এআইএডিএমকে। এর ফলে এআইএডিএমকের নির্বাচনী প্রতীক ‘জোড়া পাতা’ ফ্রিজ করে দেয় নির্বাচন কমিশন। সেই প্রতীক যাতে শশীকলা শিবিরকে দেওয়া হয়, সেই জন্যই ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ ওঠে দিনকরণের বিরুদ্ধে।

নির্বাচন কমিশনের আধিকারিককে দেওয়ার জন্য চন্দ্রশেখর নামক এক দালালকে মোটা টাকা ঘুষ দেওয়ার অভিযোগে টানা তিনি দিন জেরা করা হয় দিনকরণকে। কিছু দিন আগে দিল্লির একটি হোটেল থেকে ১ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা-সহ গ্রেফতার করা হয় চন্দ্রশেখরকে। এর পর পুলিশের জেরায় চন্দ্রশেখরের সঙ্গে দেখা করার কথা স্বীকার করে নিলে গ্রেফতার করা হয় দিনকরণকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here