চাষের জমিতে পড়ল বড়ো সাইজের উল্কা, চাঞ্চল্য বিহারে

২০১৬ সালে তামিনাড়ুতেও এ রকম একটি ঘটনা ঘটেছিল। আকাশ থেকে পাথর পড়ায় এক বাসচালকের মৃত্যুও হয়

0

মধুবনি (বিহার): বুধবার দুপুর। জমিতে চাষের কাজ করছিলেন একদল কৃষক। হঠাৎ বিকট শব্দে কান প্রায় ঝালাপালা হয়ে গেল তাঁদের। সেই সঙ্গে আকাশ থেকে কিছু একটা পড়ল। ধোঁয়ায় ঢেকে গেল চারিদিক। হতচকিত কৃষকরা দৌড়ে কিছুটা দূরে চলে গেলেন। তার পর সব কিছু শান্ত হতে আবার ফিরলেন। দেখলেন, একটি বড়ো গর্ত হয়েছে আর সেখানে রয়েছে একটি পাথর।

চার ফুট গভীর ওই গর্ত থেকে পাথরটাকে বের করতে দেখেই চক্ষু চড়কগাছ। এই ধরনের পাথর তাঁরা কখনও দেখেননি। এটা যে সাধারণ কোনো পাথর নয়, সেটা বুঝে গিয়েছেন মধুবনির জেলাশাসক সিরাসত কপিল অশোক। তিনি বলেন, “এই পাথর সাধারণ কোনো পাথর নয়। ১৫ কিলো ওজনের এই পাথরে ম্যাগনেটিক শক্তি রয়েছে। পাথরের একটা দিক অসম্ভব চকচক করছে।”

এর পরেই বিজ্ঞানীদের এই পাথরটি দেখানো হয়। বেশির ভাগ বিজ্ঞানীর মত, এটি উল্কা। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে তামিলনাড়ুতেও এ রকম একটি ঘটনা ঘটেছিল। আকাশ থেকে পাথর পড়ায় এক বাসচালকের মৃত্যুও হয়। সেটাকেও উল্কা পড়া হিসেবেই ধরে নেওয়া হয়েছিল, যদিও তামিলনাড়ুর ঘটনাটিকে উল্কা বর্ষণ বলে মানতে চায়নি নাসা।

আরও পড়ুন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেও স্বস্তিতে নেই ইয়েদিয়ুরাপ্পাও

তবে সাম্প্রতিক ইতিহাসে সব থেকে বড়ো উল্কা বর্ষণের ঘটনা ঘটেছিল ২০১৩ সালে। রাশিয়ার উরাল পর্বতে একটি বিশালাকার উল্কা ধেয়ে এসেছিল। ঘটনায় আহত হয়েছিলেন অন্তত ১২০০ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.