e sreedharan metro

ওয়েবডেস্ক: দিল্লির মেট্রোতে তাঁর অবদানের কথা ভোলার নয়। ১৯৯৫ থেকে ২০১২ পর্যন্ত দিল্লির মেট্রোর সর্বেসর্বা ছিলেন তিনি। এ জন্য ‘মেট্রো ম্যান’ তকমাও জুটেছে তাঁর মাথায়। এ হেন ব্যক্তি, ই শ্রীধরণ সাফ জানিয়ে দিলেন বুলেট ট্রেনের যে স্বপ্ন কেন্দ্র দেখাচ্ছে সেটা সমাজের সম্ভান্ত্র শ্রেণির জন্য, যাঁরা যথেষ্ট ধনী।

উল্লেখ্য, দেশের মেট্রো রেল ব্যবস্থার সঠিক মান নির্ধারণের জন্য গত সপ্তাহেই একটি কমিটি তৈরি করা হয়েছে। আর তার মাথায় শ্রীধরণকেই বসিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তার পরেও তিনি কেন্দ্রের বিরোধিতায় সরব হলেন।

হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে শ্রীধরণ বলেন, “বুলেট ট্রেন শুধুমাত্র সমাজের সম্ভ্রান্ত শ্রেণির মানুষদের জন্য। সাধারণ মানুষ, বুলেট ট্রেন চড়ার খরচা বহন করতে পারবেন না।” তিনি বলেন, বুলেট ট্রেন নয়, ভারত এখন চায় আধুনিক, নিরাপদ, পরিচ্ছন্ন রেল ব্যবস্থা।

২০২২-এর মধ্যে মুম্বই থেকে অমদাবাদ বুলেট ট্রেন চালু করার কথা ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। এই প্রকল্পটি মোদীর স্বপ্নের এক প্রকল্প। তবে এই প্রকল্পে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে জমি অধিগ্রহণ।

মোদী যতই বলুন তাঁর জমানায় রেলের দুর্দান্ত উন্নতি হয়েছে, সেই দাবিকে সম্পূর্ণ নস্যাৎ করে দিয়েছেন শ্রীধরণ। তাঁর কথায়, “ভারতীয় রেল দুর্দান্ত উন্নতি করেছে এটা মানতে পারছি না। বায়ো-টয়লেট ছাড়া প্রযুক্তিগত কিছু উন্নতিই হয়নি। গতি তো বাড়েইনি, উলটে অনেক ট্রেনের গতি ক্রমশ কমে গিয়েছে। ট্রেন সময়মতো চলে না। দুর্ঘটনা কমেনি।” উন্নত দেশের থেকে ভারতীয় রেল অন্তত কুড়ি বছর পিছিয়ে বলেও মন্তব্য করেন ‘মেট্রো ম্যান।’

বুলেট ট্রেন নিয়ে বিরোধীদের নিন্দার মুখে মাঝেমধ্যেই পড়তে হচ্ছে কেন্দ্রকে। কিন্তু এই প্রথম কোনো বিশেষজ্ঞ বুলেট ট্রেন নিয়ে কেন্দ্রের সমালোচনা করলেন, যা অত্যন্ত তাৎপর্য বলেই মনে করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here