global peace index

ওয়েবডেস্ক: কাশ্মীরের সোপিয়ান জেলায় সেনার গুলিতে দুই যুবকের মৃত্যুর প্রতিবাদে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ডাকা বন্‌ধে থমথমে কাশ্মীর। কাশ্মীরের বেশ কিছু জায়গায় জারি হয়েছে কার্ফু। কিছু অংশে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা। চাপানউতোর চলছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের মধ্যে।

শনিবার বিকেলে কাশ্মীরের সোপিয়ান জেলায় একটি গ্রামের মধ্য দিয়ে সেনাবাহিনীর কনভয় যাওয়ার সময় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় কনভয়ের চারটি গাড়ি। সেই চারটি গাড়িকে ঘিরে ঘরে পাথর ছুঁড়তে থাকে ১০০-১২০ জন গ্রামবাসী। দ্রুত সেই সংখ্যাটা বেড়ে ২০০-২৫০ হয়ে যায়। জনতার ছোঁড়া পাথরে আহত হয়ে জ্ঞান হারান এক জুনিয়র কমিশনড অফিসার। প্রায় ১১টি গাড়ি ভাঙচুর করে উত্তেজিত জনতা। কিছুদিন আগেই ওই জেলার অন্যত্র সেনার গুলিতে এক চা বিক্রিতার মৃত্যু হয়েছে, আহত হয়েছে ৪ মহিলা। তারপর থেকেই জেলাজুড়ে উত্তেজনা রয়েছে। বাহিনীর সঙ্গে এর আগেও গণ্ডগোলের জড়িয়েছে জনতা। তার জেরেই ঘটে শনিবার বিকেলের ঘটনা।

অফিসার আহত হয়ে যাওয়ার পর আতঙ্কিত হয়ে পড়ে সেনাবাহনী। তাঁদের দাবি ‘আত্মরক্ষার্থে’ জনতার দিকে গুলি ছোঁড়ে তাঁরা। তাতেই মৃত্যু হয় ২০ ও ২৪ বছর বয়সি দুই যুবকের।

ঘটনার পর থেকেই তীব্র চাপানউতোর চলছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের মধ্যে। ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে মেহবুবা মুফতির সরকার। প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের সঙ্গে আলোচনাও করা হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে।

 

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন