Modi-and-doctors-apron

ওয়েবডেস্ক: পঞ্চাশ কোটি মানুষের জন্য যে স্বাস্থ্য সুরক্ষা কর্মসূচি কেন্দ্র ঘোষণা করেছে তাতে কেন্দ্রের বার্ষিক খরচ হবে প্রায় বারো হাজার কোটি টাকা। এমনই জানিয়েছেন নীতি আয়োগের উপদেষ্টা অলোক কুমার। ১৫ আগস্ট বা ২ অক্টোবর এই প্রকল্প চালু করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বাজেট পেশ করার সময়ে জাতীয় স্বাস্থ্য সুরক্ষা প্রকল্প (ন্যাশনাল হেলথ প্রোটেকশন স্কিম) ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। যুক্তরাষ্ট্রের ‘ওবামাকেয়ার’-এর লাইনেই এই প্রকল্পকে ‘মোদীকেয়ার’ আখ্যা দেওয়া হচ্ছে। বিশ্বের বৃহত্তম এই স্বাস্থ্য প্রকল্পে মোট খরচের ষাট শতাংশ দেবে কেন্দ্র বাকিটা দিতে হবে রাজ্যকে।

এই প্রকল্পে দেশের দশ কোটি গরিব পরিবারকে পাঁচ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্যবিমা দেওয়া হবে। এই বিমা নেওয়ার জন্য পরিবারপ্রতি এক হাজার থেকে বারোশো টাকার প্রিমিয়াম লাগবে। সেটাও কেন্দ্র এবং রাজ্য বহন করবে বলে জানানো হয়েছে।

নীতি আয়োগের এক সদস্য বলেন, স্বাস্থ্য এবং শিক্ষার ওপরে যে বাড়তি এক শতাংশ সেস বসানো হয়েছে, তাতেই এই প্রকল্পের সব খরচ উঠে যাবে। ২০১১-এর ‘সোশিও ইকোনমিক কাস্ট সার্ভে’-এর ভিত্তিতে সব গরিব মানুষ এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন। এই প্রকল্পের জন্যও আধার সংযুক্তিকরণের কথা বলা হবে তবে আধারকে বাধ্যতামূলক করা হবে না।

অর্থমন্ত্রী বলেন, নীতি আয়োগ এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সঙ্গে পরামর্শ করে এই বিমাকে চূড়ান্ত রূপ দেওয়া হবে। এই প্রকল্প যে সাধারণ মানুষের জন্য খুব সহজ হবে সে কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থসচিব এসসি গর্গ। কেন্দ্রের অন্য স্বাস্থ্য প্রকল্প, রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্যবিমা যোজনার ক্ষেত্রে সবাইকে নথিভুক্ত করতে হত, এবং নথিভুক্তিকরণ অনেক শক্ত ছিল। তাঁর কথায়, “এই প্রকল্প সাধারণ মানুষের কাছে খুব সহজেই পৌঁছে যাবে।”

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন