হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের হুমকি অগ্রাহ্য, বিআর শেট্টির ‘মহাভারত’-এ সমর্থন জানালেন প্রধানমন্ত্রী

0
562

নয়াদিল্লি: ভীমের জবানিতে নয়, সত্যিকারের মহাভারতের গল্প একমাত্র ব্যাসদেবের জবানিতেই হতে পারে। এই যুক্তিতে ভারতীয় ইতিহাসে সর্বোচ্চ লগ্নির সিনেমার ওপর হুমকি দিচ্ছিল একটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। কিন্তু সেই হুমকিকে তোয়াক্কা না করেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়ে দিলেন, এই সিনেমাটি দেখার জন্য তিনি মুখিয়ে রয়েছেন।

মালায়ালম লেখক এম টি বাসুদেবন নায়ারের ‘রান্দামুঝম’-এর ভিত্তিতে ভারতের ইতিহাসে সব থেকে বৃহত্তর লগ্নির সিনেমা প্রযোজনা করতে চলেছেন সংযুক্ত আরব আমিরশাহি নিবাসী ভারতীয় ব্যবসায়ী বি আর শেট্টি। এক হাজার কোটি টাকা লগ্নির এই সিনেমায় মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করার কথা মালায়ালি অভিনেতা মোহনলালের। সিনেমাটির শুটিং শুরু হওয়ার আগেই অবশ্য বাধ সাধে কেরলের একটি উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন কেরল হিন্দু ঐক্য বেদি। তাদের দাবি ছিল, একমাত্র ব্যাসদেবের জবানিতে গল্পই প্রকৃত মহাভারত হিসেবে ধরা হবে, অন্য কারও জবানিতে বলা গল্প মহাভারত হতে পারে না। সিনেমার শুটিং না করতে দেওয়ারও হুমকি দেয় এই সংগঠনটি। উপায়ান্তর না দেখে প্রধানমন্ত্রীর শরণাপন্ন হয় ‘টিম মহাভারত’। নরেন্দ্র মোদীকে লেখা একটি চিঠিতে সমস্যার কথা জানান শেট্টি।

চিঠির উত্তরে শেট্টিকে সিনেমাটির প্রতি পূর্ণ সমর্থনের কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী জানান, এই সিনেমাটির মুক্তি পাওয়ার জন্য তিনি অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন। ভারতের কাছে একটি গর্বের মুহূর্ত বলে জানান মোদী। মোদীর আশ্বাসে অবশ্য কিছুটা পিছু হঠেছেন ওই সংগঠনের সভাপতি কেপি শশিকলা। তবে সিনেমাটা যাতে ‘মহাভারত’ নাম না দেওয়া হয়, সে ব্যাপারে অনড় তিনি।

সম্ভবত তাঁর হুমকিকে কিছুটা মান্যতা দিয়ে কেরলে ‘মহাভারত’ নামে মুক্তি পাবে না সিনেমাটি। আসল উপন্যাস অনুযায়ী ‘রান্দামুঝম’ নামেই মুক্তি পাবে সে। তবে কেরল বাদে সারা বিশ্বে ‘মহাভারত’ই থাকবে সিনেমাটির নাম। ২০১৮ থেকে সিনেমাটির শুটিং শুরু হওয়ার কথা। মোদীকে ধন্যবাদ দিয়ে শেট্টি বলেন যে আবু ধাবিতে সিনেমাটির শুটিং শুরু হবে। শেট্টির কথায়, “ব্যবসায়ী হিসেবে আবু ধাবিতেই আমি সব কিছু পেয়েছি। তাই এখানেই সিনেমাটির শুটিং শুরু করতে চাই আমি।”

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here