নয়াদিল্লি: লখিমপুর খেরির ঘটনা নিয়ে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী এবং উত্তরপ্রদেশে যোগী আদিত্যনাথ সরকারকে তোপ দাগলেন সিপিএম সাধারণ সম্পাদক এবং প্রাক্তন রাজ্যসভা সাংসদ সীতারাম ইয়েচুরি (Sitaram Yechury)। বুধবার তিনি বলেন, ভারতে ব্রিটিশ শাসনের সঙ্গেই তুলনা চলে মোদী-যোগী সরকারের।

উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরি (Lakhim Kheri) জেলায় প্রতিবাদ কৃষকদের গাড়ি দিয়ে পিষে মারার ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে ইয়েচুরি বলেন, “এই ধরনের নৃশংসতা এবং নিষ্ঠুরতা দেখা গিয়েছিল ব্রিটিশ শাসনে। যা এখন কেন্দ্রের মোদী এবং উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকার করছে। এই ঘটনা চম্পারনে ব্রিটিশ অত্যাচারের কথা মনে করিয়ে দেয়। এই সরকারের নির্যাতনের অভ্যাস রয়েছে এবং দিনে দিনে সেই অভ্যেসটা বেড়েই চলেছে”।

লখিমপুর খেরি কাণ্ডে আইন-শৃঙ্খলার অবনতির কারণ দেখিয়ে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর সফরে অনুমতি দেয়নি উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। এ প্রসঙ্গে সিপিএম নেতা বলেন, “ভারতে যে কোনো নাগরিক দেশের যে কোনো অংশে যেতে পারেন। সেই জায়গায় কোনো একটি রাজ্য সরকার কী ভাবে বলতে পারে, আমার রাজ্যে ঢুকতে পারবেন না আপনি? এটা আমাদের সংবিধানের লঙ্ঘন”।

একই সঙ্গে ইয়েচুরি বলেন, লখিমপুর কাণ্ডে অভিযুক্তদের অবিলম্বে গ্রেফতার করা উচিত। তাঁর কথায়, এফআইআর দায়ের করা মানেই তদন্ত শুরু হয়েছে বোঝায় না। যথার্থ তদন্ত শুরু হোক, অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হোক।

উল্লেখ্য, লখিমপুর খেরিতে রবিবারের হিংসার ঘটনায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্র টেনির ছেলের বিরুদ্ধে দায়ের হয়েছে এফআইআর। রবিবারের ঘটনায় চার কৃষক-সহ আট জনের মৃত্যু হয় লখিমপুরে। বিরোধীরা এই ঘটনার জন্য মন্ত্রীর ছেলেকে দায়ী করলেও তিনি জানিয়েছেন, ঘটনাস্থলে ছিলেন না তাঁর ছেলে। পাল্টা কৃষক বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের একাংশের বিরুদ্ধে তাঁদের দলের তিন কর্মী ও এক চালককে হত্যার অভিযোগ তুলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

এ দিন মন্ত্রীকে তলব করেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তবে অমিত শাহের সঙ্গে সাক্ষাতে এই ইস্তফার নির্দেশই দেওয়া হয়েছে কি না, সে নিয়ে রয়েছে জল্পনা।

এই সংক্রান্ত আরও খবর পড়তে পারেন এখানে:

লখিমপুর কাণ্ডে অভিযুক্ত কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে তলব অমিত শাহের, কী কথা হল তা নিয়ে রইল জল্পনা

প্রিয়ঙ্কার পর এ বার রাহুল গান্ধীকেও লখিমপুরে যাওয়ার অনুমতি দিল না উত্তরপ্রদেশ সরকার

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন