২০১৪ সালের লোকসভা ভোটের আগে নরেন্দ্র মোদীর প্রচারে চমক ছিল অনেক। তবে সব চমককে মনে হয় ছাপিয়ে গিয়েছিল ‘চায়ে পে চর্চা’। ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে আমদাবাদের এক চায়ের দোকানে বসে চা খেতে খেতে প্রধানমন্ত্রীপদের প্রত্যাশী কথাবার্তা বলেছিলেন সারা দেশের মানুষের সঙ্গে। দেশের ৩০০টি শহরের ১০০০টি চায়ের দোকানে জড়ো হওয়া জনতার সঙ্গে। তার মধ্যে ছিল গুজরাতের ২২টি শহরে ৬১টি চায়ের দোকান। জায়ান্ট স্ক্রিনে মোদী ও জনতা দেখতে পাচ্ছিলেন পরস্পরকে। মোদীর নির্বাচনী প্রচার দল ‘ক্যাম্পেন ফর অ্যাকাউন্টেবল গভর্ন্যান্স’ পরিকল্পনা করেছিল সেই প্রচারের, রূপায়ণও।

সে দিন ভারতবাসী মোদীকে দেখেছিল আমদাবাদের একটি দোকানে বসে চা খেতে। কানে তাঁর ইয়ারফোন। দোকানের নাম ইসকন গন্থিয়া টি শপ।

সেই দোকানটি বন্ধ রয়েছে গত ৫ আগস্ট থেকে। দোকানের কাঠামোর প্ল্যান ও মালিকানা সংক্রান্ত নথি পুরসভাকে দেখাতে না পারায় সেটিকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আমদাবাদ পুরসভার সংশ্লিষ্ট দফতরের মত অনুযায়ী দোকানটির কাঠামো বেআইনি, ফলে বাড়িটিকে ঘিরে যানজট হচ্ছে। কাছেই পার্কিং-এর জায়গা থাকা সত্ত্বেও দোকানটির আশেপাশে গাড়ি পার্কিং করছেন অনেকে। নথির খোঁজে পুরসভার আধিকারিকরা দু’বার দোকানে গেলেও কাজ হয়নি। পাওয়া যায়নি কিছুই। তাই দোকানটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন আমদাবাদ পুরসভার এক আধিকারিক।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here