onion price hike

ওয়েবডেস্ক : কলকাতার কোথাও ৫০ তো কোথাও ৬০ টাকা দরে বিকোচ্ছে পিঁয়াজ। দিল্লিতে অবশ্য এক কেজি পিঁয়াজের সর্বনিম্ন দাম ৮০ টাকা। অতীতে একাধিক বার নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছে পিঁয়াজের দাম। সরকারি ভাবে আগাম রাশ না টানার প্রবণতাই যে এর মূল কারণ তা স্পষ্ট হয়েছে বারবার। তবুও টনক নড়ছে না সরকারের। আর এবার তো পুরোপুরি বিষয়টি থেকে হাত ধুয়ে ফেললেন কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ান। আজ দিল্লিতে নিজের মন্ত্রকের আধিকারিকদের নিয়ে আয়োজিত এক সভায় মন্ত্রী বলেই ফেলেন, পিঁয়াজের দাম বাড়বে, না কি কমবে তা তিনি জানেন না।

মন্ত্রীর কথার পরিপ্রেক্ষিতে ধরা নেওয়া হচ্ছে, যত দিন গড়াবে পিঁয়াজের দামও তত চড়চড়িয়ে বাড়বে। গত মাসের শেষ দিনে পিঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে প্রশ্নের মুখে রামবিলাস বলেছিলেন, কালোবাজারিদের জন্যই পিঁয়াজ বা টম্যাটোর দাম মধ্যবিত্তের লাগামের বাইরে চলে যাচ্ছে। এমন বক্তব্যের রেশ ধরে সমালোচকরা বলতে শুরু করেন, তাহলে কি সরকার নয়, কালোবাজারিরাই বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে ? তাদের হাতে যদি সত্যিই বাজারের রাশ চলে যায় এবং সে খবর যদি সরকারের কাছে থাকে তবে সরকার উপযুক্ত ব্যবস্থা নিচ্ছে না কেন ?

তারপরে অবশ্য সরকার কতটা কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা জানা যায়নি। কিন্তু আজকের সভায় রামবিলাস পিঁয়াজের ক্রমবর্ধমান দাম সম্পর্কে নতুন তথ্য পেশ করেছেন। তিনি পরিসংখ্যান সমেত বলেন, গত আর্থিক বছরের তুলনায় এ বছর পিঁয়াজের চাষ অনেকটাই হ্রাস পেয়েছে। গত ২০১৬-১৭ সালে যেখানে ২.৬৫ লক্ষ হেক্টর জমিতে পিঁয়াজ চাষ হয়েছিল। এবছর তা কমে দাঁড়িয়েছে ১.৯০ লক্ষ হেক্টরে।

মন্ত্রী আরও বলেন, তাঁর কাছে খবর আছে মহারাষ্ট্রের নাসিক বা রাজস্থানের আলওয়ারে সস্তায় পিঁয়াজ পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু সেখান বাজারজাত করার প্রক্রিয়াটি তাঁদের হাতে নেই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here