মুম্বই: টুইটে কিংবা জনসমক্ষে বিতর্কিত মন্তব্য করতে লেখিকা শোভা দে সিদ্ধহস্ত। সে রকমই এক মন্তব্য যে অসাধ্য সাধন করবে, কে জানত? মুম্বই পুরসভা ভোটের দিন লেখিকা এক স্থূল চেহারার পুলিশের ছবি টুইট করে নিচে লেখেন, ‘হেভি পোলিস বন্দোবস্ত ইন মুম্বই টুডে”। শোভা দে-র ওই টুইট বহু সমালোচনার মুখে পড়ে। কিন্তু  যাকে উদ্দেশ করে টুইট, সেই দৌলতরাম জোগায়াত কিন্তু নড়েচড়ে বসেন। ঘটনার দু’সপ্তাহের মধ্যে বেরিয়াট্রিক সার্জারি করে ইতিমধ্যে ১৫ কেজি ঝরিয়ে ফেলেছেন তিনি।

 

মুম্বই-এর সাইফি হাসপাতালে ডঃ মুফফাজল লাকদাওয়ালা ল্যাপেরোস্কোপিক বাইপাস সার্জারি করলেন জোগায়াতের। চিকিৎসক নিজেই জানালেন, “দৌলতরাম খুব দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছেন। ইতিমধ্যে ১৫ কিলো ওজন কমিয়ে ফেলেছেন। আগামী কয়েক মাসে ১৫ কেজি করে কমাতে পারলেই এক বছরের মধ্যে ১০০-র মধ্যে নিয়ে আসা সম্ভব হবে ওজন”। দীর্ঘদিন ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন, স্লিপ অ্যাপনিয়ার মতো নানা সমস্যায় ভুগছিলেন ওই পুলিশ আধিকারিক।  চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে নিয়ন্ত্রিত ডায়েট এবং দিনে নিয়মিত এক ঘণ্টা হেঁটে রীতিমতো ‘ফিট’ মধ্যপ্রদেশের দৌলতরাম। বললেন, “আগের তুলনায় অনেক হালকা লাগছে এখন।”

শোভা দের টুইটের প্রত্যুত্তরে জোগায়াত বলেন বেশি খেয়ে তিনি মোটা হননি, তাঁর স্থুলতার কারণ  ইনসুলিনের ভারসাম্যতার অভাব। এর পরই দেশের বিভিন্ন প্রান্তের হাসপাতাল থেকে দৌলতরামের কাছে বিনামূল্যে সার্জারি করার প্রস্তাব আসে। প্রাথমিক পরীক্ষা নিরীক্ষার পর দেখা যায়, জোগায়াতের অস্বাভাবিক স্থূলতার সঙ্গে হরমোন কিংবা জিনের কোনো সম্পর্ক নেই। তাই  বেরিয়াট্রিক সার্জারির সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here