akhilesh and kiranmoy

ওয়েবডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মৎস্যমন্ত্রী তথা বর্তমানে উত্তরপ্রদেশে সমাজবাদী পার্টির নেতা কিরণময় নন্দ গভীর সংশয়ে পড়েছেন নিজের সাংসদপদটিকে ধরে রাখার বিষয়ে। সংসদীয় নির্ঘণ্ট অনুযায়ী, আগামী ২ এপ্রিল, ২০১৮-তেই শেষ হতে চলেছে তাঁর সাংসদপদের মেয়াদ। কিন্তু সমাজবাদী পার্টির বর্তমান বিধায়ক সংখ্যার নিরিখে তাঁর পক্ষে যে ওই পদ টিকিয়ে রাখা মোটেই সহজ হবে না, তা হাড়েহাড়ে টের পাচ্ছেন এই ‘করিৎকর্মা’ রাজনীতিক।

সমাজবাদী পার্টির বর্তমান সাংসদপদের সংখ্যা মোট ১৯টি। এর মধ্যে থেক ছ’জন সাংসদের মেয়াদ শেষ হতে চলেছে এপ্রিলেই। সেই তালিকাতেই রয়েছেন কিরণময়। উত্তরপ্রদেশে ২০১৭ বিধানসভা নির্বাচনে চরম ভাবে পর্যুদস্থ হয়েছে সমাজবাদী পার্টি। তারা মাত্র ৪৭টি আসনে জয়লাভ করে। সেই পরিসংখ্যান থেকেই স্পষ্ট আগামী রাজ্যসভা সাংসদ নির্বাচনে ক্ষেত্রে দলের তরফে এক জনকেই মনোনয়ন দেওয়া সম্ভব। কে সেই একজন?

উত্তরটা অতি সহজ। দলের রাজ্যসভার মুখ্য সচেতক নরেশ আগরওয়ালকেই সর্বসম্মতিক্রমে মেনে নেবে সমাজবাদী পার্টি। তা হলে কিরণময়বাবুর কী হবে?

সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই তৎপরতা তুঙ্গে উঠেছে তাঁর। ঘনিষ্ট মহলে বলেছেন, নিজের দল যে তাঁকে মনোনয়ন দেবে না, তা প্রায় নিশ্চিত। ফলে অন্য কোনো দলের সঙ্গে রাজনৈতিক এবং ব্যক্তিগত সম্পর্কের জেরে যদি কিছু করা যায়, সেই চেষ্টাই এখন তিনি চালিয়ে যাচ্ছেন। এ ব্যাপারে তাঁর প্রথম গন্তব্য ছিল তৃণমূল কংগ্রেসের শরণাপন্ন হওয়া। কিন্তু খেলাটা চলছে অনেক উপরে। আর এক সাংসদ জয়া বচ্চনকে নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চিন্তাভাবনা করছেন বলে জানা গিয়েছে। জয়াও উত্তরপ্রদেশ থেকে সমাজবাদী পার্টির সাংসদ হয়েছেন, মেয়াদ শেষ হচ্ছে তাঁরও।

এখন দেখার, নাগালের বাইরে চলে যাওয়া ‘বৃত্তে’ ঢুকতে কিরণময় কতটা সফল হন!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here