aadhaar number and PF account

কলকাতা: কর্মচারী ভবিষ্যনিধি তহবিল সংগঠন  (ইপিএফও) জানিয়ে দিল, আধার সংযুক্তিকরণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর একজন ব্যক্তির একাধিক পিএফ অ্যাকাউন্ট নম্বরগুলি বাদ দিতে সক্ষম হবে তারা।

অতিরিক্ত কেন্দ্রীয় পিএফ কমিশনার এস বি সিনহা পিটিআইকে বলেছেন, পিএফ এবং ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের  সঙ্গে আধার সংযুক্তিকরণ প্রক্রিয়া  সম্পন্ন হলেই পুরো বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে যাবে। কারণ, যদি কোনো ব্যক্তির একাধিক পিএফ অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে তা হলে তা আধার সংযুক্তি প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হওয়ার পরই ধরা পড়ে যাবে।

যে কারণে সমস্ত স্তরে পিএফ অ্যাকাউন্টের সঙ্গে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট সম্পৃক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সংগঠন। এর ফলে একদিকে যেমন অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকা যায় তেমনই গচ্ছিত টাকা তুলে নেওয়ার ক্ষেত্রেও কোনো সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় না। কারণ অনলাইনে টাকা তুলে নেওয়ার আবেদনের ক্ষেত্রে আধার নম্বর সংযুক্তির প্রয়োজনীয়তা বাধ্যতা মূলক।

আইসিসি আয়োজিত একটি ভবিষ্যনিধি তহবিল সংক্রান্ত সেমিনারে আঞ্চলিক পিএফ কমিশনার নবেন্দু রাই মন্তব্য করেছেন, এ সময়ে পশ্চিমবঙ্গে ভবিষ্যনিধি প্রকল্পে নিয়মিত অর্থ গচ্ছিতকারীর সংখ্যা ২৬ লক্ষ। কিন্তু আশর্যজনক ভাবে রাজ্য থেকে অনুমোদন করা পিএফ অ্যাকাউন্টের সংখ্যা প্রায় ৭০ লক্ষ।

তিনি বলেছেন, এই পরিসংখ্যান থেকে বোঝাই যাচ্ছে গড়ে একজন কর্মচারীর তিনটি করে পিএফ অ্যাকাউন্ট রয়েছে। তবে এই অস্বাভাবিকত্বের সৃষ্টি হয়েছে চাকরিস্থল পরিবর্তন করা বা চাকরি ছেড়ে দেওয়ার ফলে।

উল্লেখ্য, গত ১ জুলাই, ২০১৭ থেকে কর্মচারীদের ইউনিভার্সেল আইডেন্টিফিকেশন নাম্বার বা ইউআইএন দেওয়ার ক্ষেত্রে আধার, মোবাইল এবং ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর বাধ্যতা মূলক করা হয়েছে।

তবে একাধিক পিএফ অ্যাকাউন্ট রয়েছে এমন কর্মচারীকে নিজেকে কিছু করার দরকার পড়বে না। আধার নম্বর সংযুক্তির পর স্বয়ংক্রিয় ভাবেই তাঁর সমস্ত অ্যাকাউন্টগুলি একত্রিত হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন কমিশনার।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here