abu salem gets life imprisonment in mumbai blast case

মুম্বই: ১৯৯৩ সালের মুম্বই বিস্ফোরণ মামলায় দুই অভিযুক্তকে ফাঁসির সাজা শোনাল আদালত। আবু সালেম-সহ দুই অভিযুক্তের ভাগ্যে জুটল যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে। তবে সম্ভবত ২৫ বছরের বেশি জেলে থাকতে হবে না আবু সালেমকে।

চব্বিশ বছর আগে মুম্বইয়ে ঘটে যাওয়া ভয়াবহ বিস্ফোরণের মামলায় এ দিন রায় দেয় বিশেষ টাডা আদালত। দুই অভিযুক্ত তেহের মার্চেন্ট এবং ফিরোজ আব্দুল রশিদকে ফাঁসির নির্দেশ দেয় আদালত। পাশাপাশি আবু সালেম এবং আরও এক অভিযুক্ত করিমুল্লাহ খানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। আরও এক অভিযুক্ত রিয়াজ সিদ্দিকিকে দশ বছরের কারাবাসের সাজা সোনায় আদালত।

ফিরোজ, মার্চেন্ট এবং করিমুল্লাহ-এর জন্য ফাঁসির আবেদন করেছিল সিবিআই। অন্য দিকে সালেম এবং সিদ্দিকির জন্য সিবিআইয়ের দাবি ছিল যাবজ্জীবন। অন্য এক অভিযুক্ত মুস্তাফা দোসা, মাস দুয়েক আগে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

তবে আবু সালেমকে ২৫ বছরের বেশি জেলে রাখা যাবে না বলে জানিয়েছেন সিবিআইয়ের তদন্তকারী অফিসার ওপি আটওয়াল। ২০০৪-এ পর্তুগালের সঙ্গে বন্দি প্রত্যর্পণ চুক্তি করে সালেমকে নিয়ে আসা হয় ভারতে। আটওয়ালের কথায়, “সালেমকে কোনো ভাবেই মৃত্যুদণ্ড দেওয়া যাবে না, সে ব্যাপারে পর্তুগালকে আশ্বস্ত করতে হয়েছিল। পর্তুগালেও আবু সালেমকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছিল।” পর্তুগালে মৃত্যুদণ্ড বেআইনি, তাই সালেমকে পাওয়ার জন্য এই ভারতের তরফ থেকে এই আশ্বাস পর্তুগালকে দেওয়া হয়েছিল।

উল্লেখ্য, ১৯৯৩ সালের ১২ মার্চ পরপর বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে মুম্বই। শহরের ইতিহাসে এটি প্রথম জঙ্গিহানা ছিল। শহরের বারোটা জায়গায় বিস্ফোরণের ফলে মৃত্যু হয় ২৫৭ জনের। আহত হয়েছিলেন ৭১৩ জন।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন