মুম্বই: চাঞ্চল্যকর অপরাধ। পরিণতি খুন এবং জেল। ড্রাগে আসক্ত ২১ বছরের রামচরণ রামদাস দ্বিবেদি যৌনতাতেও আসক্ত হয়ে পড়েছিল। প্রায় এক ডজন মহিলাকে ধর্ষণ করেছিল সে। বাদ দেয়নি নিজের মা এবং সৎ মাকেও। দিনের পর দিন ছেলের হাতে যৌন নিগ্রহের শিকার হয়ে আর স্থির থাকতে পারেননি মুম্বইয়ের ভায়ান্দার পশ্চিম অঞ্চলের ওই মহিলা। নিয়ে নেন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।

বড়ো ছেলের সঙ্গে পরিকল্পনা করেন ছোটো ছেলেকে খুন করার। ৫০ হাজার টাকা দিয়ে নিজের দুই বন্ধুকে খুন করার বরাত দেন ওই মহিলা। সেই মতো রামচরণকে ভুলিয়েভালিয়ে একটি টেম্পোতে তোলে সীতারাম ও অন্য দু’জন। শহর থেকে দূরে একটি খনি এলাকায় রামচরণকে নামিয়ে গলা কেটে হত্যা করে তাকে। দেহ ফেলে দেয় একটি খনিতে। এটা ২০ আগস্টের ঘটনা।

মৃত রামচরণ

পরের দিন দেহ খুঁজে পায় পুলিশ। কিন্তু মৃতের পরিচয় জানতে পারেনি। শেষ অবধি মৃতের ছবি দিয়ে পোস্টারও দেওয়া হয়। ওই চেহারার একজন যে কিছুদিন যাবত নিখোঁজ, জানা যায় তাও। শেষ পর্যন্ত সেই সূত্র ধরেই খুনিদের কাছে পৌঁছয় পুলিশ। জেরায় অপরাধ স্বীকার করেছে সকলেই। ১৭ সেপ্টেম্বর মা-সহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন