mumbai police

ওয়েবডেস্ক: ভুল করে পোস্ট হয়ে গিয়েছে বুঝি? না কি প্রোফাইল হ্যাক হল? আসলে পশুপাখি নিয়ে কাজ করা তো আর যার-ই হোক, পুলিশের এক্তিয়ারে পড়ে না।

ফলে মুম্বই পুলিশের টুইটার হ্যান্ডেলে যখন দেখা গেল একটা বিড়ালের ভিডিও, চমকে উঠেছিলেন সবাই। আপনিও চমকে উঠবেন। সেই চমক আরও বাড়বে যখন একটু ধৈর্য নিয়ে দেখবেন ভিডিওটা। খুব ছোটো ভিডিও তা নয়, পুরো ১ মিনিট ৮ সেকেন্ডের। মানে, টুইট ভিডিওর পক্ষে কম বড়ো নয় আর কী!

কী দেখা যাচ্ছে সেই ভিডিওয়?

ভিডিওটায় ক্লিক করার পর যখন তা চলতে শুরু করছে, কানে আসছে রাস্তার নানা আওয়াজ। গাড়ি চলে যাওয়ার শব্দ, গাড়ির হর্নের শব্দ আর সব ছাপিয়ে উঠে আসছে এক দম্পতির বাক্যালাপ। একটা বিড়ালকে রাস্তার জেব্রা ক্রসিংয়ের সামনে নামিয়ে দিয়ে মজা দেখছেন তাঁরা। আর আলোচনা করছেন নিজেদের মধ্যে- বিড়ালটা রাস্তা পেরোয় কি না!

বিড়াল অবশ্য রাস্তা ঠিকই পেরোল। তবে এক ছুটে নয়। যতক্ষণ পর্যন্ত গাড়ি চলাচল করছিল, ততক্ষণ পর্যন্ত সে গ্যাঁট হয়ে বসে ছিল জেব্রা ক্রসিংয়ের সামনে। দেখা গেল ভিডিওয়- দু-একবার সে রাস্তা পেরোতে গিয়েও থমকে গেল। অবশেষে যখন ট্রাফিক থেমে গেল, তখন ধীরে ধীরে রাস্তাটা পার হয়ে গেল সে। তা-ও আবার জেব্রা ক্রসিং ধরেই!

এই ভিডিওর সঙ্গে রয়েছে মুম্বই পুলিশের বার্তা- এর চেয়ে বেশি কিছু বলার প্রয়োজন আছে কি?

বুঝতেই পারছি আমরা যে সত্যিই আর কিছু বলার দরকার নেই পুলিশের তরফে। ভারতের জনতাকে ট্রাফিক আইন মেনে চলার উপদেশ দিতেই এই ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে। ফলে, টুইটারে আপাতত বেশ ছড়িয়ে পড়েছে নিয়ম-নীতি, অন্তত ট্রাফিকের মেনে চলার সুপরামর্শ। বেশির ভাগ মানুষেরই এক বক্তব্য- একটা পশু যদি এমন সুষ্ঠু ভাবে ট্রাফিক আইন মানতে পারে, তবে মানুষ কেন পারবে না?

সত্যি! ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করা বেয়াড়া জনতাকে নিয়মের স্রোতে ফিরিয়ে আনতে কত কী-ই না করতে হয় পুলিশকে। ইনদওরের রঞ্জিত সিংয়ের কথা ভুলে যাননি নিশ্চয়ই? সেই রঞ্জিত, যিনি মাইকেল জ্যাকসনের ঢঙে নেচে মানুষকে ট্রাফিক আইন মানতে বাধ্য করেন?

আরও পড়ুন: মাইকেল জ্যাকসনের ঢঙে নেচে নেচে ট্রাফিক শাসন করেন এই পুলিশ, দেখুন বিস্ময়কর ভিডিওয়!

ভুলে গেলে একবার তাঁর নাচের ভিডিওটা দেখে নিন না উপরের লিঙ্কে ক্লিক করে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here