Currency

ওয়েবডেস্ক: কালোটাকা, জালনোট এবং আর্থিক দুর্নীতি রোধের উদ্দেশ্য নিয়েই কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকার নোটবন্দির মতো বড়সড়ো পদক্ষেপ নিয়েছিল বলে জানিয়েছিল। কিন্তু গত ২০১৬ সালের সেই ঘটনার ২১ মাস পর ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের (আরবিআই) পেশ করা চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট কেন্দ্র বেশ কিছুটা ব্যাকফুটে চলে গেল বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

বুধবার আরবিআই জানিয়েছে, নোটবন্দির সময় বাতিল করা ১০০০ এবং ৫০০ টাকার নোটের ৯৯.০৩ শতাংশই পুনরায় ফিরে এসেছে। অর্থাৎ, ওই পরিমাণ টাকা ফের ব্যাঙ্কে জমা পড়ে গিয়েছে।

আরবিআইয়ের পরিসংখ্যান বলছে, বাতিল হিসাবে গণ্য করা ১০০০ এবং ৫০০ টাকার মাত্র ১০,৭২০ কোটি টাকা জমা ফিরে আসেনি ব্যাঙ্কের ভাণ্ডারে।

আরবিআইয়ের রিপোর্ট আরও স্পষ্ট করে বলছে, ২০১৬ সালে ৮ নভেম্বর বাজারে ছিল ১৫.৪১ লক্ষ কোটি টাকার ১০০০ এবং ৫০০ টাকার নোট। কিন্তু সেই নোট বাতিলের পর ১৫.৩১ লক্ষ কোটি টাকা ফের সিস্টেমে ফিরে এসেছে।

তা হলে আয়কর বিহীন কালোট‌াকা যে নোটগুলির হদিশ পেতে সরকার সাধারণ মানুষের উপর অবর্ণনীয় হয়রানি চাপিয়ে দিয়ে এমন একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, তা কী ভাবে সফল হতে পারে? এমনটাই প্রশ্ন তুলছেন অর্থনীতি বিশেষজ্ঞরা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন