tuticorin

ওয়েবডেস্ক: তামিলনাড়ুর থুদুকুড়ি (পূর্বনাম তুতিকোরিন)-তে স্টারলাইট তামা কারখানা বন্ধের দাবিতে আন্দোলনকারীদের উপর গুলিবর্ষণের তদন্তে সুয়োমটো মামলা শুরু করল জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। পাশাপাশি গুলি চালনার কারণ দর্শাতেও নির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে দিল।

গত মঙ্গলবার বেদান্ত স্টারলাইট কপার কারখানা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভে শামিল হয়েছিলেন আশপাশের ১৮টি গ্রামের মানুষ। তাঁরা কারখানার সামনে বিক্ষোভ দেখাতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। বিক্ষোভকারীরা পৌঁছোন জেলা কালেক্টরেটের কার্যালয়ের সামনে পৌঁছোলে পুলিশের সঙ্গে তাঁদের খণ্ডযুদ্ধ বেঁধে যায়। লাঠিচার্জ করে পুলিশ, এমনকী ছোঁড়া হয় কাঁদানে গ্যাস। ছত্রভঙ্গি হওয়ার পরিবর্তে বিক্ষোভকারীরা আরও সংগঠিত হন। পুলিশকে লক্ষ্য করে ছোড়া হয় ইট। জ্বালিয়ে দেওয়া হয় পুলিশের গাড়ি। এর পরই পুলিশ গুলি চালায়। পুলিশের গুলিতে মারা যান ১১ জন বিক্ষোভকারী।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশন তামিলনাড়ুর মুখ্যসচিব ও ডিজির কাছে জানতে চেয়েছে ঘটনার পূর্ণাঙ্গ বিবরণ। বিশেষ করে কেন গুলি চালানো হল এবং কার নির্দেশে গুলি চালানো হয়েছে সেই প্রশ্নের উত্তর জানতে চায় কমিশন। কমিশনের তরফে বলা হয়েছে, আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে মুখ্যসচিব এবং ডিজি যেন তাঁদের রিপোর্ট জমা করেন।

জানা গিয়েছে, প্রাক্তন বিচারক অরুণা জগদীশনকে তামিলনাড়ু সরকারের পক্ষ থেকে ঘটনার পূর্ণা্ঙ্গ তদন্তের ভার দেওয়া হয়েছে।

অন্য দিকে মাদ্রাজ হাইকোর্টের মাদুরাই বেঞ্চ স্টারলাইট কারখানার সম্প্রসারণের উপর স্থগিতাদেশ জারি করেছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here