nitish kumar bihar violence jdu

ওয়েবডেস্ক: মাত্র ৪০টা লোকসভা আসন। তাতে আবার বিজেপির সঙ্গে রয়েছে চারটে শরিক। সামনের বছর লোকসভা নির্বাচনে আসন ভাগাভাগি নিয়ে ইতিমধ্যেই অস্বস্তি তৈরি হয়েছে বিহারের এনডিএ জোটের মধ্যে। সেই অস্বস্তি আরও বাড়ল বিজেপির এক নেতার একটি মন্তব্যে।

বিহার বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাজেন্দ্র সিংহ বলেছেন, আগের লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে জেতা লোকসভা আসনগুলি কোনো ভাবেই ছাড়বে না তারা। এই মন্তব্যেই শুরু হয়েছে জল্পনা, তা হলে কি এনডিএ-র সংকট বাড়ল।

২০১৪-এর লোকসভা নির্বাচনে ৪০টার মধ্যে ২৩টা আসন জিতেছিল বিজেপি। তখন তাদের দুই শরিক এলজেপি এবং আরএলএসপি জিতেছিল যথাক্রমে ৬টা এবং ৩টে আসন। অন্য দিকে একা লড়ে মাত্র দু’টি আসনেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল জেডিইউকে।

কিন্তু এ বার পরিস্থিতি সম্পূর্ণ ভিন্ন। এনডিএতে যোগদান করেছে জেডিইউ। বিহারের এনডিএ-র মুখকে সে ব্যাপারে তর্কবিতর্ক চলছে বিজেপি এবং জেডিইউয়ের নেতাদের মধ্যে। জেডিইউয়ের কয়েক জন নেতা সাফ করেই বলে দিয়েছেন বিহারে নীতীশ কুমারের নেতৃত্বে ভোটে যাবে এনডিএ। এমন মন্তব্য নিয়ে বিজেপি কিছু না বললেও, ক্ষোভ প্রকাশ করেছে অন্য শরিক আরএলএসপি।

আরএলএসপি নেতা উপেন্দ্র খুশওয়াহা জেডিইউয়ের আচরণের প্রতিবাদ করে এনডিএ ছাড়ার হুমকি দিয়েছিল, কিন্তু এখনও সেই পথে এগোয়নি তারা।

তবে ঝামেলা অন্য জায়গায়, জেডিইউ থেকে খুব পরিষ্কার ভাবেই বলে দেওয়া হয়েছে ২৫টা আসনে তারা লড়বে। অর্থাৎ, বিজেপি এবং অন্য শরিকদের জন্য বড়োজোর ১৫টা আসন ছাড়তে রাজি জেডিইউ। কিন্তু বিজেপি নেতার ওই মন্তব্যের পরে তো মনে হয়, ২৩টা আসনের সঙ্গে কোনো রকম আপস করবে না তারা। অন্য দিকে এলজেপি এবং আরএলএসপিও জানিয়ে দিয়েছে তারাও তাদের জেতা আসন কিছুতেই ছাড়বে না।

এই আবহে বিহারে এনডিএর সংকট যে আরও বাড়ল সেটা ভালো করেই বলে দেওয়া যায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here