এ বছর থেকেই নেতাজির জন্মদিন দেশপ্রেম দিবস হিসাবে স্বীকৃতি পেতে চলেছে

0

শৈবাল বিশ্বাস[/caption] বামপন্থীরা বেশ কয়েক বছর ধরেই দাবি জানিয়ে আসছে, নেতাজির জন্মদিন ২৩ জানুয়ারিকে দেশপ্রেম দিবস হিসাবে ঘোষণা করতে হবে। ইউএপিএ আমলে সরকার এ ব্য‌াপারে কোনো হেলদোল দেখায়নি। বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর নতুন করে ফরওয়ার্ড ব্লক ও অন্য‌ান্য‌ বেশ কয়েকটি নেতাজি গবেষণা গোষ্ঠী এই নিয়ে দাবি পেশ করে। নেতাজির মৃত্য‌ু রহস্য‌ এবং দেশপ্রেম দিবসের দাবি নিয়ে নেতাজির পরিবারের সদস্য‌রা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দেখাও করেন। মোদি তাঁদের কথা দিয়েছিলেন তিনি বিষয়টি বিবেচনা করে দেখবেন। প্রতিশ্রুতিমতো কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্য‌ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কাছে থাকা বেশ কিছু ক্লাসিফায়েড নেতাজি-ফাইল ইতিমধ্য‌ে প্রকাশ করতে শুরু করেছে। সেই ফাইল ঘেঁটে দেখা গিয়েছে কংগ্রেস যখনই ক্ষমতায় থেকেছ তখনই নেতাজি সংক্রান্ত কোনো গুজব বা খবর মিললেই তাকে গোয়েন্দা বাহিনীর গোচরে এনে যৎপরোনাস্তি অনুসন্ধান চালানো হয়েছে। বিজেপি সরকার ক্লাসিফায়েড নেতাজি-ফাইল প্রকাশ করলেও তাঁর মৃত্য‌ুরহস্য‌ নিয়ে অনুসন্ধান করার ব্য‌াপারে উদ্য‌োগী হওয়া বা দেশপ্রেম দিবস ঘোষণা করার ব্য‌াপারে কোনো উচ্চবাচ্য‌ করেনি। নীতিগত ভাবে এই দাবি দু’টির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী একমত হলেও এখনও সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন না কেন? এই প্রশ্ন সামনে রেখে নেতাজির পরিবারের তরফে বারবার প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহকে চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে নেতাজির পরিবারের সদস্য‌রা দাবি করেছেন। নেতাজির নাতি চন্দ্রকুমার বসু কিছু দিন আগে একটু আক্ষেপের ভাষায় চিঠি লিখে প্রধানমন্ত্রীকে তাঁর প্রতিশ্রুতির কথা মনে করিয়ে দেন। এর পর গত ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী তাঁকে সস্ত্রীক ডেকে পাঠান। তাঁদের সঙ্গে নিভৃত আলাপচারিতায় প্রধানমন্ত্রী দ্রুত এ ব্য‌াপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছেন। কেবল দেশপ্রেম দিবস ঘোষণাই নয়, নেতাজির অন্তর্ধান নিয়ে বিভিন্ন বিভাগের বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) গঠনের মতো কিছু ঘোষণাও প্রধানমন্ত্রী করতে পারেন বলে মনে করেন চন্দ্রবাবুরা। খুব শীঘ্রই দিল্লি থেকে এ ব্য‌াপারে ঘোষণা হতে পারে। এ দিকে ফরওয়ার্ড ব্লক এ বারেও দেশপ্রেম দিবস ঘোষণার দাবিকে কেন্দ্র করে  গোটা জানুয়ারি মাস জুড়ে প্রচার অভিযান শুরু করেছে। দিল্লিতে এ ব্য‌াপারে জাতীয় কনভেনশন করার কথা জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক দেবব্রত বিশ্বাস।]]>

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here