২৪ বছর পর কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট পদে কোনো অ-গান্ধী নেতা, শশী তারুরকে হারিয়ে জয়ী হলেন মল্লিকার্জুন খড়্গে

0

নয়াদিল্লি: বুধবার নতুন প্রেসিডেন্ট পেল কংগ্রেস। দীর্ঘ দু’দশকেরও বেশি সময় পরে কংগ্রেসের শীর্ষ পদে বসলেন গান্ধী পরিবারের বাইরের কোনো নেতা। সোমবার দেশ জুড়ে অনুষ্ঠিত হয় কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচন। বুধবার ভোটগণনায় দেখা যায়, প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস নেতা শশী তারুরকে পরাজিত করে জয়ী হলেন মল্লিকার্জুন খড়্গে।

সূত্রের খবর, মোট ৯,৩৮৫টি ভোটের মধ্যে মল্লিকার্জুন খড়্গে পেয়েছেন ৭,৮৯৭টি। অন্য দিকে, শশী তারুরের পক্ষে পড়েছে ১,০৭২টি ভোট। ৪১৬ ভোট বাতিল করা হয়েছে। এই পরিসংখ্যানেই স্পষ্ট, কংগ্রেস সভাপতি নির্বাচনী বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন খড়্গে। ফলে সীতারাম কেশরীর পর ফের গান্ধী পরিবারের বাইরের কেউ দেশের প্রাচীনতম রাজনৈতিক দলের সভাপতি হলেন।

কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট হওয়ার লড়াইয়ে নেমেছিলেন মল্লিকার্জুন খড়্গে (Mallikarjun Kharge) ও শশী তারুর (Shashi Tharoor)। তবে প্রায় সকলেই একমত, প্রেসিডেন্টের কুর্সিতে বসতে চলেছেন খড়্গেই। কারণ, গান্ধীদের কেউই প্রতিদ্বন্দ্বিতা না করলেও খড়্গেকেই ‘অনুমোদিত’ প্রার্থী হিসাবে দেখা হচ্ছে। তবে দুই প্রার্থীই নিজেদের জয়ের ব্যাপারে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী ছিলেন।

খড়্গে এবং তারুর দু’জনেই জানিয়েছিলেন, গান্ধীরা নির্বাচনের বিষয়ে নিরপেক্ষ ছিলেন। একই সঙ্গে তারুরের অভিযোগ, “আরেক প্রার্থীর প্রতি দলের একাংশের পক্ষপাতিত্বের কারণে আমাদের বিরুদ্ধে প্রতিকূলতা তৈরি হয়েছে”। যদিও কংগ্রেসের সেন্ট্রাল ইলেকশন অথরিটির চেয়ারম্যান মধুসূদন মিস্ত্রী নির্বাচন নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বলেছেন, একটি “অবাধ, সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ” হয়েছে।

মঙ্গলবারই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ব্যালট বক্স এসে পৌঁছেছিল দিল্লিতে কংগ্রেসের সদর দফতরের স্ট্রং রুমে। সেখানেই এ দিন সকাল ১০টা থেকে শুরু হয় কাউন্টিং।

বলে রাখা ভালো, স্বাধীনতার পর থেকেই বেশির ভাগ সময়ই কংগ্রেসের নেতৃত্ব দিয়েছেন গান্ধী পরিবারের কোনো না কোনো সদস্য। তাঁর সর্বসম্মত ভাবেই নির্বাচিত হয়ে এসেছেন। একাধিক প্রার্থী থাকায় মাত্র ছ’বার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল কংগ্রসে। প্রথম বার, ১৯৩৯ সালে মহাত্মা গান্ধী সমর্থিত পি সীতারামাইয়া হেরে গিয়েছিলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর কাছে।

আরও পড়ুন: আজ খসড়া তালিকা প্রকাশ, পঞ্চায়েত ভোট কবে

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন