নয়াদিল্লি: ভারতবাসীর কাছে পাঁচ বছর সময় চেয়ে নিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বললেন, ২০১৯ নয়, ২০২২ সালে স্বাধীনতার ৭৫ বছরেই সূচনা হবে নতুন ভারতের। এই ভারত গড়ে তুলতে আমাদের হাতে পাঁচ বছর সময় আছে। পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের এক দিন পর বিজেপির সদর দফতরে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভোটের ফলে ইঙ্গিত মিলেছে, ‘নতুন ভারতের’ সূচনা হচ্ছে, যেখানে দরিদ্র মানুষ আর মন-ভোলানো উপহার-টুপহার চাইবে না, চাইবে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ। “নতুন ভারতের সূচনা সমাসন্ন। পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের ফলকে আমি নতুন ভারতের ভিত্তি হিসাবে দেখছি, যে ভারতের স্বপ্ন দেখেন অনূর্ধ্ব ৩৫-এর যুবকযুবতীরা এবং সমান সচেতন মহিলারা। এঁরাই দেশের জনসংখ্যার ৬৫ শতাংশ। নতুন ভারতে দরিদ্র মানুষরা সাহায্য চাইবে না, চাইবে কিছু করার সুযোগ। এটাই হবে নতুন পরিবর্তন”, বলেন প্রধানমন্ত্রী। 

এর আগে প্রধানমন্ত্রী ২০২২ সালের মধ্যে নতুন ভারত গড়ে তোলার কাজে তাঁর সঙ্গে যোগ দেওয়া এবং প্রতিজ্ঞা করার জন্য তাঁর নামে নামাঙ্কিত অ্যাপের মাধ্যমে আবেদন জানান —  “ভারতের প্রতিটি নাগরিকের শক্তির মাধ্যমে ভারতের পরিবর্তন হচ্ছে; যে ভারত চলবে উদ্ভাবনী ক্ষমতা, কঠোর পরিশ্রম আর সৃজনশীলতার মাধ্যমে; যে ভারতের বৈশিষ্ট্য শান্তি, ঐক্য এবং ভ্রাতৃত্ব; যে ভারত দুর্নীতি, সন্ত্রাসবাদ, কালো বাজার আর নোংরা থেকে মুক্ত। আসুন, সবাই এক সঙ্গে আমাদের স্বপ্নের ভারত গড়ি, যেখানে ২০২২ সালে স্বাধীনতার ৭৫ বছর পালন করব, আমরা এমন এক ভারত গড়ব যার জন্য গান্ধীজি, সর্দার পটেল এবং বাবাসাহেব অম্বেডকর গর্ববোধ করবেন।”

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন