Connect with us

দেশ

হংকং থেকে ব্রিটেন হয়ে যুক্তরাষ্ট্র পালিয়েছেন নীরব মোদী

ওয়েবডেস্ক: হংকং থেকে ব্রিটেন হয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চলে গিয়েছেন পলাতক হীরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী। এমনই জানা গিয়েছে কেন্দ্রীয় এক তদন্তকারী সংস্থার রিপোর্টে। গত ফেব্রুয়ারিতে যখন মোদীর একাধিক সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হচ্ছিল তখনই চুপিসারে হংকং ছাড়েন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার আগে অন্তত এক মাস তিনি লন্ডনে ছিলেন বলেও জানা গিয়েছে। নীরব কী ভাবে আইনকে ধোঁকা দিয়ে পালিয়েছেন […]

Published

on

ওয়েবডেস্ক: হংকং থেকে ব্রিটেন হয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চলে গিয়েছেন পলাতক হীরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী। এমনই জানা গিয়েছে কেন্দ্রীয় এক তদন্তকারী সংস্থার রিপোর্টে।

গত ফেব্রুয়ারিতে যখন মোদীর একাধিক সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হচ্ছিল তখনই চুপিসারে হংকং ছাড়েন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার আগে অন্তত এক মাস তিনি লন্ডনে ছিলেন বলেও জানা গিয়েছে।

নীরব কী ভাবে আইনকে ধোঁকা দিয়ে পালিয়েছেন তার একটি রিপোর্ট এসেছে টাইমস অফ ইন্ডিয়ার হাতে। সেই রিপোর্টে দেখা গিয়েছে ১ জানুয়ারি মুম্বই থেকে পালিয়ে নীরব প্রথম সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে যান। সেখানে এক মাস থাকার পরে ফেব্রুয়ারির ২ তারিখ হংকং চলে আসেন তিনি। আমিরশাহিতে তিনি গ্রেফতার হয়ে যেতে পারেন, এই ধারণা থেকেই সেখান থেকে পালান তিনি। হংকং-এ আসার দু’দিন আগেই মোদী স্ত্রী অ্যামি, ভাই নিশাল, মামা মেহুল চোকসি-সহ তাদের একাধিক সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে সিবিআই।

রিপোর্টে বলা হয়েছে হংকং-এ বেশি দিন থাকার পরিকল্পনা করলেও সেখানকার আইনি জটিলতায় সে শহরও ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। ১৪ ফেব্রুয়ারি তিনি লন্ডনে চলে আসেন।

লন্ডনে বন্ড স্ট্রিট মেট্রো স্টেশন লাগোয়া একটি বিলাসবহুল বাড়িতে এক মাস থাকতেন নীরব। এরপরেই সম্ভবত মার্চের মাঝামাঝি নিউ ইয়র্কে চলে যান তিনি। তদন্তকারীদের ধারণা নীরবের ভারতীয় পাসপোর্ট অবৈধ হওয়ার বেলজিয়ামের পাসপোর্ট ব্যবহার করে এতো ভ্রমণ করেছেন নীরব।

নিউ ইয়র্কের টাইমস স্কোয়ারের কাছে ব্রডওয়ে স্ট্রিট লাগোয়া একটি বাড়িতে রয়েছে নীরব। ওই অঞ্চলে প্রায়েই নিজের বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে নীরবকে দেখা যায়।

তদন্তকারী সংস্থা জানিয়েছে হংকং-এ  তিনটে অলঙ্কারের দোকান রয়েছে নীরবের। পিএনবি থেকে যত টাকা নীরব নিয়েছেন সেই টাকাগুলি এই তিনটে দোকানে খাটিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা ছিল তাঁর।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে নীরব যখন ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিই হংকং ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন তখন, মার্চের শেষে কেন তাঁকে গ্রেফতার করার জন্য চিনা প্রশাসনের কাছে আবেদন করেছিল ভারতের বিদেশমন্ত্রক?

দেশ

উমর খালিদের মুক্তির দাবিতে সরব অমিতাভ ঘোষ, মীরা নায়ার-সহ দুশোর বেশি বিদ্বজ্জন

বিদ্বজ্জনেরা বলেছেন, উমর খালিদের বিরুদ্ধে তদন্তের নামে যা চলছে তা আসলে ‘পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে এক জন প্রতিপক্ষ খুঁজে নিয়ে তাঁকে হেনস্থা করা’।

Published

on

Umar Khalid
ঊমর খালিদ। ফাইল চিত্র।

খবর অনলাইন ডেস্ক: জেএনইউ-এর প্রাক্তন ছাত্র উমর খালিদের (Umar Khalid) মুক্তির দাবিতে তাঁর সমর্থনে বিবৃতি দিলেন দুশোরও বেশি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক শিক্ষাবিদ, পণ্ডিত ও শিল্পী। গত ফেব্রুয়ারির দিল্লি দাঙ্গায় (Delhi Riots) তাঁর ‘ভূমিকা’র জন্য বন্দি রয়েছেন উমর খালিদ।

বিদ্বজ্জনেরা বলেছেন, উমর খালিদের বিরুদ্ধে তদন্তের নামে যা চলছে তা আসলে ‘পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে এক জন প্রতিপক্ষ খুঁজে নিয়ে তাঁকে হেনস্থা করা’। দিল্লি পুলিশ (Delhi Police) উমর খালিদকে ইউএপিএ-র (অবৈধ কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইন, UAPA) ধারা মোতাবেক মিথ্যা মামলায় জড়িয়েছে।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ, CAA) এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জির (এনআরসি, NRC) বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানোর জন্য খালিদ-সহ যাঁদের মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে কারাবন্দি করে রাখা হয়েছে, তাদের মুক্তির দাবি জানিয়েছেন ওই বিদ্বজ্জনেরা। তাঁরা চান, ভারতীয় সংবিধানের প্রতি দায়বদ্ধ থেকে সরকারি চাকুরেরা নিরপেক্ষতা বজায় রাখার যে শপথ নেন, সেই শপথের কথা মনে রেখে দিল্লি পুলিশ দিল্লি দাঙ্গা নিয়ে তদন্ত করুক।

বিবৃতিতে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ২০৮ জন বিদ্বজ্জন সই করেছেন। এঁদের মধ্যে রয়েছেন ভাষাবিদ নোয়াম চোমস্কি, লেখক সলমন রুশদি, অমিতাভ ঘোষ, অরুন্ধতী রায়, রামচন্দ্র গুহ ও রাজমোহন গান্ধী, চলচ্চিত্রনির্মাতা মীরা নায়ার ও আনন্দ পটবর্ধন, ইতিহাসবিদ রোমিলা থাপার ও ইরফান হাবিব এবং সমাজকর্মী মেধা পাটকর এবং অরুণা রায় প্রমুখ।

তাঁরা লিখেছেন, “আমরা সংহতি প্রকাশ করতে এবং ক্ষোভ জানাতে সাহসী তরুণ স্কলার ও সমাজকর্মী উমর খালিদের পাশে দাঁড়িয়েছি। তাঁকে দেশদ্রোহিতা, হত্যার ষড়যন্ত্র এবং ভারতের কঠোর সন্ত্রাসবিরোধী আইন ইউএপিএ-র বিভিন্ন ধারায় অভিযুক্ত করা হয়েছে। সমস্ত মতদ্বৈধতাকে অপরাধের তকমা দেওয়ার প্রক্রিয়া গত কয়েক বছর ধরে চলছে এবং এমনকি কোভিড ১৯ অতিমারির মধ্যেও মিথ্যা অভিযোগে অবিরাম রাজনৈতিক গ্রেফতারি চালিয়ে বিচারের আগেই নিরীহদের শাস্তি দেওয়া হচ্ছে।”

তাঁরা বলেছেন, “যে ২১ জনকে সন্ত্রাসবিরোধী আইন বলে মিথ্যা অভিযুক্ত করা হয়েছে, তাদের মধ্যে ১৯ জনই মুসলিম। আমরা যদি ধরে নিই, তাদের পরিচিতিই তাদের অপরাধ, তা হলে ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রসমূহের আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীতে ভারতের মাথা হেঁট হয়ে যাবে। এই ব্যক্তিরা সন্ত্রাসবাদী নন এবং দিল্লি দাঙ্গা নিয়ে পুলিশের যে তদন্ত চলছে, তা আদতে তদন্ত নয়। তা হল পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে প্রতিপক্ষ খুঁজে নিয়ে তাঁদের হেনস্থা করা।”

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বেশ কিছু বিজেপি নেতা “‘বিশ্বাসঘাতকদের গুলি করে মারার জন্য’ সমর্থকদের উত্তেজিত করতে ঘৃণ্য বক্তৃতা দিয়েছেন”, কিন্তু “তাঁদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।”

বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারীরা বলেছেন, “দুর্ভাগ্যজনক ভাবে বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রের ভূমিকা নিয়ে ন্যূনতম পুলিশি যাচাই হয়নি। অথচ ইনি ২০২০-এর ২৩ ফেব্রুয়ারি উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে পুলিশের ডেপুটি কমিশনারের পাশে দাঁড়িয়ে হুমকি দিয়ে বলেন, সিএএ-র প্রতিবাদকারীদের যদি সরিয়ে দেওয়া না হয়, তা হলে তাঁর সমর্থকরা গোটা ব্যাপারটা নিজেদের হাতে তুলে নেবে। ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দিল্লিতে যে দাঙ্গা চলে এই বক্তৃতাই তাতে ইন্ধন জুগিয়েছিল বলে অভিযোগ। অথচ তার বদলে তরুণ প্রতিবাদকারীদের টার্গেট করে জেলে পুরে দেওয়া হল।”

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

দিল্লি দাঙ্গার চার্জশিটে সলমন খুরশিদ, বৃন্দা কারাত, প্রশান্ত ভূষণের নাম

Continue Reading

দেশ

কর্নাটকে বিজেপি সরকারের স্থায়িত্ব ঘিরে নয়া জল্পনা! অনাস্থা প্রস্তাব আনল কংগ্রেস

‘মহানাটকে’ আরও একটি অঙ্কের সংযোজন হয়ে গেল।

Published

on

Yeddyurappa and siddaramaiah
ইয়েদিয়ুরাপ্পা এবং সিদ্ধারামাইয়া। ফাইল ছবি

বেঙ্গালুরু: কর্নাটকের বিএস ইয়েদিয়ুরাপ্পা সরকারেরর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে এল বিরোধী দল কংগ্রেস! কর্নাটক বিধানসভার অধ্যক্ষ বিশ্বেশ্বর হেগড়ে বৃহস্পতিবার বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে কংগ্রেসের অনাস্থা নোটিশের কথা স্বীকার করে নিলেন।

জানা গিয়েছে, বিধি মেনেই ২৩ জন বিধায়কের সমর্থন নিশ্চিত করে অনাস্থা নোটিশ পেশ করেছেন বিরোধী নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধারামাইয়া। অনাস্থা নোটিশের কথা স্বীকার করে নিয়ে হেগড়ে বলেন, “আগামী দু’দিনের মধ্যেই অনাস্থা প্রস্তাবের উপর আলোচনার জন্য সময় নির্ধারিত হবে”।

সিদ্ধারামাইয়া বলেন, “আমরা একটি নোটিশ দিয়ে জানিয়েছি, বিধানসভা এবং রাজ্যের মানুষের কাছে ইয়েদিয়ুরাপ্পা সরকার আস্থা হারিয়েছে”। একই সঙ্গে তিনি দাবি করেছেন, বিধি অনুযায়ী বিরোধীদের সঙ্গে ২৩ জন বিধায়কের সমর্থন রয়েছে।

কর্নাটকে মহানাটক!

২০১৮ সালে কর্নাটক বিধানসভা ভোটে জিতে সরকার গঠন করে কংগ্রেস-জেডিএস। কিন্তু বছরখানেকের মধ্যেই আস্থাভোটে কর্নাটকের কংগ্রেস-জেডিএস জোট সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণে ব্যর্থ হয়। গত ২০১৯ সালের ২৩ জুলাই আস্থাভোটের ফলে দেখা যায়, ক্ষমতাসীন জোট পেয়েছে মাত্র ৯৯টি ভোট। অন্য দিকে বিজেপি পেয়েছে ১০৫টি।

মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ দেন ইয়েদিয়ুরাপ্পা। তিন দিন পর ফের আস্থাভোটের ডাক দেন তিনি।

প্রত্যাশামতোই আস্থাভোটে জিতে যায় কর্নাটকের বিএস ইয়েদিয়ুরাপ্পা সরকার। কর্নাটক বিধানসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণে সফল হন ইয়েদি। ওই আস্থাভোটের মধ্যে দিয়ে প্রায় এক মাস ধরে চলতে থাকা কর্নাটকের নাটকের আপাত সমাপ্তি ঘটে। কিন্তু কংগ্রেসের নয়া পদক্ষেপে সেই নাটকে আরও একটি অঙ্কের সংযোজন হয়ে গেল।

কেন অনাস্থা?

কংগ্রেস পরিষদীয় দলের বৈঠকে সিদ্ধারামাইয়া দাবি করেন, “কর্নাটকের বিজেপি সরকার বিধানসভা এবং রাজ্যের মানুষের আস্থা হারিয়েছে। ব্যাপক দুর্নীতি, গতিরুদ্ধ হয়ে পড়া উন্নয়ন এবং রাজ্যের চরম আর্থিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে এই সরকারের শাসনকালে”।

শাসক দল বিজেপি অবশ্য কংগ্রেসের এই পদক্ষেপকে ‘রাজনৈতিক চমক’ বলেই দাবি করেছে। তাদের দাবি, বিরোধীদের কাছে প্রয়োজনীয় সংখ্যক বিধায়ক নেই।

এ প্রসঙ্গে সিদ্ধারামাইয়া দাবি করেন, “শাসকদলের অনেকেই ভোট দেওয়ার সময় অনাস্থা প্রস্তাবের পক্ষেই ভোট দিতে পারেন”।

Continue Reading

দেশ

‘হ্যাঁ, আমি রাজনীতিতে যোগ দেব’, স্বীকার করলেন বিহারের প্রাক্তন ডিজি

মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই সুর বদলালেন প্রাক্তন ডিজিপি গুপ্তেশ্বর পান্ডে!

Published

on

প্রাক্তন ডিজি গুপ্তেশ্বর পান্ডে

খবর অনলাইন ডেস্ক: গত মঙ্গলবার বিহারের ডিজি পদ থেকে স্বেচ্ছাবসর নিয়েছিলেন গুপ্তেশ্বর পান্ডে। দিন কয়েক বাদেই তিনি নিশ্চিত করলেন শীঘ্রই তিনি রাজনীতিতে যোগ দিতে চলেছেন।

সামনেই বিহারের বিধানসভা ভোট। স্বাভাবিক ভাবেই আচমকা শীর্ষ পুলিশকর্তার স্বেচ্ছাবসর ঘিরে জোর জল্পনা ছড়ায়। শোনা যায়, তিনি বিহারের ভোটে প্রার্থী হচ্ছেন। কিন্তু গত বুধবার তিনি বলেন, “দেশসেবার জন্য রাজনীতিই একমাত্র পথ নয়”।

এখন কী বলছেন গুপ্তেশ্বর পান্ডে?

২৪ ঘণ্টার মধ্যেই তিনি বৃহস্পতিবার জানান, “রাজনীতিতে যোগ দেওয়া কি পাপ? এ সম্পর্কে অনৈতিক ও অনৈতিক কী? অপরাধীরা সংসদে পৌঁছে যায়, তা হলে আমি কেন এ বিষয়ে ভাবতে পারব না”।

তিনি বলেন, “বেগুসরাই, সীতামারি, শাহপুর এবং অন্যান্য জেলা থেকে আমার কাছে প্রচুর মানুষ আসছেন। তাঁরা আমাকে প্রস্তাব দিচ্ছেন, আমি যদি ভোটে লড়তে চাই, তা হলে তাঁরা নিজেদের জেলা থেকে আমাকে প্রার্থী করতে প্রস্তুত। বক্সারে আমি জন্মেছি এবং বড়ো হয়েছি। এটা তাঁদের সিদ্ধান্তের উপরই নির্ভর করছে। তাঁরা যদি চান, তা হলে আমি রাজনীতিতে যোগ দেব”।

একই সঙ্গে সমালোচনাকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “রাজনৈতিক নেতাদের এই সমালোচনা অপ্রত্যাশিত। কারণ, আমার পরিবারের কোনো সদস্যই আমার জন্য তাঁদের কাছে তদ্বির করছেন না। আমার পরিবার চাষবাস এবং পশুপালন করত। কিছু মানুষের কাছে এগুলো গ্রহণযোগ্য নয় বলেই তাঁরা এ ধরনের সমালোচনা করছেন”।

কী বলেছিলেন গুপ্তেশ্বর পান্ডে?

তাঁকে ঘিরে রাজনৈতিক গুঞ্জনের মধ্যেই সদ্য প্রাক্তন ডিজি গত বুধবার মন্তব্য করেন, “আমি নিজে কি বলেছি যে ভোটে লড়ব? এখনও পর্যন্ত কোনও দলে যোগও দিইনি। যদি তেমন কোনো সিদ্ধান্ত নিই, তা হলে নিশ্চয়ই জানাব। রাজনীতিই দেশ সেবার একমাত্র রাস্তা নয়। বক্সার, জেহানাবাদ, বেগুসরাই এবং অন্যান্য জেলা থেকে অনেক মানুষ আসছেন আমার কাছে। তাঁরা আমাকে কী ভাবে দেখতে চান, তা নিয়ে কথা বলব। তার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব”।

আরও পড়তে পারেন: আচমকা স্বেচ্ছাবসর নিলেন বিহারের ডিজি, লড়তে পারেন ভোটে

প্রসঙ্গত, স্বেচ্ছাবসরের আবেদন জমা করার পরই তা গৃহীত হয়। এ ব্যাপারে বিহারের নীতীশ কুমার সরকারের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগও ওঠে। কারণ, স্বেচ্ছাসবসর নেওয়ার পর তিন মাসের কুলিং অব পিরিয়ডে কাজ করে যাওয়াটাই নিয়ম। তবে গুপ্তেশ্বরের জন্য সেই নিয়মে ছাড় দিয়েছে নীতীশ সরকার।

Continue Reading
Advertisement
Umar Khalid
দেশ4 hours ago

উমর খালিদের মুক্তির দাবিতে সরব অমিতাভ ঘোষ, মীরা নায়ার-সহ দুশোর বেশি বিদ্বজ্জন

KL Rahul
ক্রিকেট6 hours ago

রাহুল-ঝড়ে তছনছ বেঙ্গালুরু

KL Rahul
ক্রিকেট7 hours ago

রেকর্ড বইয়ে নাম লিখিয়ে দুর্ধর্ষ ইনিংস কেএল রাহুলের

কেনাকাটা8 hours ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

Poorva Express
রাজ্য8 hours ago

রবিবার থেকে হাওড়া-দিল্লি স্পেশাল ট্রেনের সংখ্যা বাড়াচ্ছে রেল

coronavirus west bengal
রাজ্য8 hours ago

রাজ্যের সামগ্রিক করোনা-পরিস্থিতি অপরিবর্তিত, বাড়ল সুস্থতার হার

রাজ্য9 hours ago

সিভিক ভলান্টিয়ার ও আশাকর্মীদের বেতন বাড়াল রাজ্য, সঙ্গে হকারদের জন্য অনুদান

Yeddyurappa and siddaramaiah
দেশ10 hours ago

কর্নাটকে বিজেপি সরকারের স্থায়িত্ব ঘিরে নয়া জল্পনা! অনাস্থা প্রস্তাব আনল কংগ্রেস

কেনাকাটা

কেনাকাটা8 hours ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা2 days ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা6 days ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা1 week ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা3 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা1 month ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

নজরে