নির্ভয়াকাণ্ডে ফাঁসির সাজাপ্রাপ্ত একজনকে নিয়ে যাওয়া হল তিহাড় জেলে

0
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: দিল্লিতে নির্ভয়া গণধর্ষণ এবং হত্যাকাণ্ডে ফাঁসির সাজা হয়েছে অক্ষয় ঠাকুর, বিনয় শর্মা, পবন গুপ্তা এবং মুকেশ সিংহ নামে চারজনের। তাদের মধ্যে থেকেই একজনকে মন্ডোলি জেল থেকে তিহাড় জেলে স্থানান্তরিত করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে মঙ্গলবার।

২০১৮ সালের জুলাই মাসে গণধর্ষণ ও হত্যায় দোষী সাব্যস্ত হওয়া সাব্যস্ত হওয়া মুকেশ, পবন গুপ্তা, বিনয় শর্মা ও অক্ষয় কুমার সিংয়ের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। এদের মধ্যে থেকে পবনকে পূর্ব দিল্লির মন্ডোলি জেল থেকে তিহাড়ে স্থানান্তরিত করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাতে একটি চলন্ত বাসে গণধর্ষণ করা হয়েছিল। গুরুতর আহত অবস্থায় পরে সিঙ্গাপুরের এক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৯ ডিসেম্বর তিনি মারা যায়। চার অপরাধীকে আগেই নিম্ন আদালত ও দিল্লি হাইকোর্ট ফাঁসির সাজা দিয়েছিল। পরে আসামিরা সুপ্রিমকোর্টে আবেদন করলেও সেই নির্দেশ বহাল থাকে।

এদের মধ্যে বিনয় রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন জানিয়েছিল। সেই আবেদন খারিজ করার জন্য সুপারিশ জানিয়েছিলেন দিল্লির গভর্নর অনিল বৈজল। ওই ঘটনার দু’দিনের মধ্যে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকও একই সুপারিশ করেছে রাষ্ট্রপতির কাছে। নির্ভয়ার পরিবারের তরফেও রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন খারিজের আবেদন জানানো হয়। এরই মধ্যে ওই প্রাণভিক্ষার আবেদনে নিজের স্বাক্ষর নেই দাবি করে আবেদন ফিরিয়ে নেওয়ার কথা জানায় আসামি নিজেই।

পবনের স্থানান্তর নিয়ে অবশ্য কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, এ ধরনের কুখ্যাত অপরাধীদের বদলি করা একটি স্বাভাবিক পদ্ধতি। নিরাপত্তাজনিত কারণে রুটিন মাফিক আসামিকে এক জেল থেকে অন্য জেলে স্থানান্তর করা হয়েছে।

তবে কয়েক দিন ধরেই বিভিন্ন মহল থেকে দাবি উঠেছে, আগামী ১৬ ডিসেম্বর নির্ভয়াকাণ্ডের সাতবছর পূরণের দিনেই আসামিদের ফাঁসির আদেশ কার্যকর করা হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.