খবর অনলাইন ডেস্ক: কোনো প্রয়োজনীয় পরিষেবার ক্ষেত্রে আধার কার্ডকে অজুহাত হিসাবে ব্যবহার করা উচিত নয়। শনিবার এমনটাই জানিয়েছেন আধার কার্ড কর্তৃপক্ষ ইউনিক আইডেন্টিফিকেশন অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (UIDAI)। আরও স্পষ্ট করেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, যে কোনো ব্যক্তির আধার কার্ড না থাকার কারণে টিকা দেওয়া, ওষুধ খাওয়ানো, হাসপাতালে ভরতি করা বা অন্য কোনো চিকিৎসা পরিষেবা থেকে বঞ্চিত করা যায় না।

দেশে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের আবহে ইউআইডিএআই-এর এই বক্তব্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। বলা হয়েছে, আধারের ক্ষেত্রে এক্সেপশন হ্যান্ডলিং মেকানিজম (EHM) রয়েছে এবং ১২ সংখ্যার বায়োমেট্রিক পরিচয়পত্র না থাকলে প্রয়োজনীয় পরিষেবা ও সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার ক্ষেত্রে তা অনুসরণ করতে হবে। কোনো নাগরিকের যদি কোনো কারণে আধার কার্ড না থাকে, তা হলেও তাঁকে আধার আইনের আওতায় পরিষেবা থেকে বঞ্চিত করা যাবে না।

ইতিমধ্যেই বেশ কিছু জায়গা থেকে খবর পাওয়া গিয়েছে, আধার কার্ডের অভাবে অনেক লোককে হাসপাতালে ভরতির মতো অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবাগুলি দিতে অস্বীকার করা হচ্ছে। এমন খবরের বিষয়ে ইউআইডিএআই স্পষ্ট করেই জানিয়েছে, আধার না থাকার কারণে কাউকে ভ্যাকসিন, ওষুধ, হাসপাতালে ভরতি করা বা চিকিৎসা সংক্রান্ত অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা যাবে না।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তির কাছে আধার না থাকলে বা যদি কোনো কারণে আধার অনলাইন ভেরিফিকেশন সম্ভব না হয়, সংশ্লিষ্ট সংস্থা বা বিভাগকে ২০১৬-র আধার আইনে উল্লেখিত নিয়ম অনুযায়ী পরিষেবা দিতে হবে। 

আরও পড়তে পারেন: PF Account: ইউএএন ছাড়াই কী ভাবে ইপিএফ ব্যালেন্স জানবেন

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন