লখনউ: যা হওয়ার ছিল, তাই হল। উত্তর প্রদেশের বিধানসভা ভোটে সপা-কংগ্রেস জুটি পর্যুদস্ত হওয়ার পর নতুন করে সামনে এল সমাজবাদী পার্টির বাবা-ছেলের দ্বন্দ্ব। ছেলেকে আক্রমণ করে মুলায়ম সিং যাদব বললেন, “অখিলেশ আমায় যে পরিমাণ অসম্মান  করেছে, তা কেউ কখনও আমায় করেনি”। 

“২০১২ সালে উত্তর প্রদেশের মানুষ আমায় ভোট দেওয়ার পর আমি অখিলেশকে মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে বসাই। কিন্তু তার পর থেকেই ও আমায় অপমান করে চলেছে”, বলেন মুলায়ম। রামমনোহর লোহিয়ার শিষ্যের কথায়, ভারতের কোনো রাজনৈতিক নেতা সক্রিয় রাজনীতিতে থাকা অবস্থায়, নিজের ছেলেকে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার সুযোগ দেননি।


রাজ্যে বিধানসভা ভোটের প্রচারে এসে কনৌজে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অখিলেশকে আক্রমণ করে বলেছিলেন, যে নিজের বাবাকে অপমান করে, সে রাজ্যের মানুষের অনুগত থাকতে পারে না। এদিন মৈনপুরীতে একটি হোটেল উদ্বোধন করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সেই মন্তব্যের উল্লেখ করেন মুলায়ম। তাঁর মতে, প্রধানমন্ত্রীর ওই মন্তব্যের জন্যই বিধানসভা ভোটে বিশাল পরাজয় হয়েছে সমাজবাদী পার্টি।


মুলায়ম বলেন, অখিলেশ , কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করায় তিনি খুবই আহত হয়েছিলেন, কারণ অতীতে কংগ্রেস তাঁকে মেরে ফেলার জন্য তিন বার হামলা চালিয়েছে।

উত্তর প্রদেশে বিধানসভা ভোটের আগে তীব্র হয়ে উঠেছিল সমাজবাদী পার্টির অভ্যন্তরীণ ক্ষমতার দ্বন্দ্ব। ছেলে অখিলেশ ও তাঁর অনুগত রামগোপাল যাদবকে দল থেকে বহিষ্কারও করে দেন মুলায়ম। পালটা কাকা শিবপাল যাদবকে দল থেকে তাড়ায় অখিলেশ গোষ্ঠী। শেষ পর্যন্ত লড়াই পৌঁছয় নির্বাচন কমিশনে। সেখানে দলের নাম ও চিহ্ন থেকে যায় অখিলেশ গোষ্ঠীর হাতেই। তারপর অবশ্য আপাত ভাবে একজোট হয়েই ভোটে লড়ে দুই গোষ্ঠী। যদিও তাতে বিপর্যয় ঠেকানো যায়নি।  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here