shillong violence

শিলং: নতুন করে কোনো সংঘর্ষের খবর পাওয়া যায়নি। ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হওয়ার পথে শিলং। এমনই জানিয়েছেন জেলা প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্তা।

শহরের চোদ্দটি স্পর্শকাতর এলাকায় এখনও ২৪ ঘণ্টার কারফিউয়ের নির্দেশ বহাল রেখেছে প্রশাসন। তবে শহরের বাকি অংশে স্বাভাবিকতা ফেরার পথে। ওই আধিকারিকের কথায়, “পুলিশ বাজার এলাকার ৯০ শতাংশ দোকান এবং বড়ো বাজার এলাকার অধিকাংশ দোকান খুলেছে। সাধারণ মানুষ তাঁদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনার জন্য দোকানবাজার করেছেন। রাস্তায় ট্যাক্সিও চলছে। যদিও এখনও বাস চলার খবর নেই।”

তবে ইন্টারনেট এবং এসএমএস পরিষেবা এখনও বন্ধ রয়েছে শহরে। পাশাপাশি সতর্কতা হিসেবে বিকেল চারটে থেকে ফের কারফিউ লাগু করা হয়েছে। বুধবার ভোট ৫টা পর্যন্ত এই কারফিউ বহাল থাকবে।

গত সপ্তাহের বৃহস্পতিবার সংঘর্ষ শুরু হয়। ‘সুইপার লেন’ হিসেবে পরিচিত শিলঙের পঞ্জাবি অধ্যুষিত পাড়ায় এক পঞ্জাবি তরুণীর সঙ্গে ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়েন স্থানীয় খাসি বাসচালকরা। এই ঝগড়া বেশ দূর না এগোলেও দ্রুত বিভিন্নরকম গুজব ছড়াতে শুরু করে। শুরু হয়ে যায় সংঘর্ষ। অশান্তিতে এখনও পর্যন্ত দশ জন আহত হয়েছেন।

শহরে রুটমার্চ করছে সেনা। বিভিন্ন জায়গায় রয়েছেন সিআরপিএফ জওয়ানরাও।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here