মুম্বই: ‘বন্দে মাতরম’ গাওয়া বা না গাওয়াটা নির্দিষ্ট ব্যক্তির ‘পছন্দ-অপছন্দের’ বিষয়। কেউ ওই গানটি না গাইলেই, তাঁকে ‘দেশদ্রোহী’ তকমা দেওয়া যায় না। বললেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুকতার আব্বাস নকভি। এদিন মুম্বইতে ওই মন্তব্য করেন তিনি। পাশাপাশি সংসদ বিষয়ক ও সংখ্যালঘু বিষয়ক রাষ্ট্রমন্ত্রী(স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত) বলেন, কেউ যদি ইচ্ছাকৃত ভাবে ওই গানটি গাওয়ার বিরোধিতা করেন, তবে তা ‘রুচিহীন’ কাজ এবং ‘দেশের স্বার্থের পরিপন্থী’ কাজ।

গত শুক্রবার এই ইস্যুতে উত্তাল হয়ে উঠেছিল মহারাষ্ট্র বিধানসভা। বিজেপি বিধায়ক রাজ পুরোহিত রাজ্যের সব স্কুল ও কলেজে ‘বন্দে মাতরম’ গাওয়া বাধ্যতামূলক করার দাবি তুলেছিলেন। সেই দাবির বিরোধিতা করে সমাজবাদী পার্টির বিধায়ক আবু আসিম আজমি বলেন, তাঁকে যদি ‘দেশের বাইরে বেরও করে দেওয়া হয়’, তাও তিনি ‘বন্দে মাতরম’ গাইবেন না। এআইএমআইএম বিধায়ক ওয়ারিস পাঠান বলেন, তাঁর ‘মাথায় বন্দুক ঠেকালেও’ তিনি ‘বন্দে মাতরম’ গাইবেন না।

সম্প্রতি মাদ্রাজ হাইকোর্ট তামিলনাডুর সব স্কুল ও কলেজে ‘বন্দে মাতরম’ গাওয়া বাধ্যতামূলক করার নির্দেশ দিয়েছে। সেই উদাহরণ দেখিয়েই ওই দাবি তোলেন মহারাষ্ট্রের বিজেপি বিধায়করা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here