আরিয়ান খানের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটে আপত্তিকর কিছু নেই, এনসিবি মামলায় ষড়যন্ত্রেরও কোনো প্রমাণ নেই: বম্বে হাইকোর্ট

0

মুম্বই: মাদক-সম্পর্কিত অপরাধের জন্য আরিয়ান খান, আরবাজ মার্চেন্ট এবং মুনমুন ধমেচার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার কোনো প্রমাণ নেই। শনিবার প্রকাশিত জামিনের নির্দেশনামায় এমনটাই বলেছে বম্বে হাইকোর্ট। আদালত বলেছে, হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের মাধ্যমে তাঁদের কথোপকথনেও আপত্তিকর কিছু পাওয়া যায়নি।

রায়ে বলা হয়েছে, “আদালতে যে সব প্রমাণ দাখিল করা হয়েছে, তা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম। শুধুমাত্র একটাই ইতিবাচক প্রমাণ রয়েছে যে, অভিযুক্ত প্রত্যেক ব্যক্তিই বেআইনি কাজ করতে সম্মত হয়েছিলেন। আবেদনকারীরা শুধুমাত্র একই প্রমোদতরীতে ভ্রমণ করছিলেন বলে তাঁদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ প্রমাণিত হয় না”।

হাইকোর্টের রায়ে আরও বলা হয়েছে, নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) তদন্তকারী অফিসারের রেকর্ড করা বয়ান স্বীকারোক্তিমূলক বক্তব্যের উপর নির্ভর করতে পারে না কারণ তাঁদের জন্য এটা বাধ্যতামূলক নয়।

আদালত স্পষ্টতই বলেছে, আরিয়ানের ফোন থেকে নেওয়া চ্যাটে “আপত্তিকর কিছু” পাওয়া যায়নি। বিচারপতি নিতিন সামব্রে বলেছেন, “তাঁর (আরিয়ান খানের) ফোন থেকে প্রাপ্ত হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটগুলি দেখার পর, আপত্তিকর কিছু লক্ষ্য করা যায়নি। যা থেকে প্রমাণ হয় না তিনি এবং আরবাজ বা ওই তিনজন আবেদনকারীর অন্য অভিযুক্তদের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার মানসিকতা রয়েছে অথবা অপরাধ করার জন্য ষড়যন্ত্র করা হয়েছে”।

১৪ পাতার ওই রায়ে আরও বলা হয়েছে, আরিয়ান খানের কাছে কোনো আপত্তিকর বস্তু (মাদক) যে পাওয়া যায়নি, তা নিয়ে কোনো বিতর্ক নেই। রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে, এটি “আরবাজ এবং মুনমুনের কাছ থেকে যে পরিমাণ মাদকদ্রব্য বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল, যদি স্বাধীন ভাবে বিবেচনা করা হয়, তবে সেটা খুবই সামান্য পরিমাণ, যা বিতর্কের বিষয় নয়”।

আজকের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়ুন এখানে:

নাইলনের দড়ি দিয়ে বাঁধা হাত! বাইপাসে যুবকের বাইক আটকে দুই নাবালিকাকে উদ্ধার করল পুলিশ

দিল্লি যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাতের সম্ভাবনা

 বঙ্গ বিজেপি-কে আপাতত বিদায় জানালেন তথাগত রায়, জল্পনা শুরু

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন