Lini Puthussery,

ওয়েবডেস্ক: “আমি আমার পথের প্রায় কাছাকাছি, আমাদের সন্তানদের যত্ন নিও …” কেরলের এক নার্স, তাঁর স্বামীর উদ্দেশে একটি নোটে এমনই কয়েকটি শব্দ লিখে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করলেন। ভয়ঙ্কর নিপা ভাইরাসে আক্রান্তদের জন্য হাসপাতালের বিশেষ ইউনিটে কর্মরতা ওই নার্স নিজেই আক্রান্ত হয়ে গিয়েছিলেন। ৩১ বছর বয়সি লিনি পুথুসি তাঁর পরিবারকে শেষবারের জন্যও দেখতে পাননি। কারণ আর অন্য কিছু নয়। সংক্রমণের আতঙ্ক। সোমবার সকালে তাঁর মৃতদেহ তড়িঘড়ি সৎকার করে ফেলা হয় ওই একই আতঙ্কে।

লিনির দুই সন্তানের বয়স যথাক্রমে সাত ও দুই বছর। কোজিকোড়ের পেরামবরা হাসপাতালে তিনি নতুন এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর শুশ্রুষায় নিযুক্ত ছিলেন।

“সাজি চেট্টা, আমি প্রায় আমার পথের শেষ প্রান্তে আছি। আমি মনে করি না যে, আমি তোমাকে এক বার দেখতে পাব। দুঃখিত… দুঃখিত, আমাদের সন্তানদের সঠিকভাবে যত্ন নিও। আমাদের দুই নির্বোধ শিশু, ওদের আগলে রেখো।  তারা যেন সব সময় অনুভব করে ‘আমাদের বাবা অনেক ভালোবাসেন’ …”, তাঁর নোটে লেখা এই কথাগুলিই  সোশ্যাল মিডিয়ার শেয়ার হয়ে চলেছে। যা পড়ে চোখে জল চলে এসেছে সাধারণ মানুষের।

nipah-virus

“নার্স লিনি নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আমাদের যুদ্ধে মৃত্যুবরণ করেছেন। এই রোগে আক্রান্ত রোগীদের রক্ষা করার চেষ্টা করে তিনি মারা যান। মাত্র ৩১ বছর বয়সে তাঁর মতো দক্ষ নার্সের মৃত্যু বেদনাদায়ক। দুই সন্তানের মা ছিলেন তিনি। তাঁকে যদি শহিদ না বলা হয়, আমি জানি না কাকে বলা হবে”, চিকিৎসকদের একটি সংগঠন দ্য ডেইলি রোডের প্রধান কার্যনির্বাহী ডা. দীপু সেবিন টুইট করেছেন এই ভাষাতেই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here