গিয়েছিলেন সরকারি খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের চাল আনতে, গ্রামপ্রধানের স্বামীর হাতে ধর্ষিত হয়ে ফিরলেন বাড়ি!

গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের চালের ব্যাপারে খোঁজ নিতে যান নির্যাতিতা। মহিলাকে অভিযুক্ত বলে, আজ নয়, কাল এসে চাল নিয়ে যেতে।

0
Rape
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: রাজ্য সরকারের খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের চাল আনতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হতে হল ওড়িশার সুন্দরগড়ের এক আদিবাসী মহিলাকে। পুলিশ জানিয়েছে, গ্রামপ্রধানের স্বামী এবং তার সহযোগীর লালসার শিকার হতে হয়েছে ওই বছর কুড়ির মহিলাকে।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগ পাওয়ার পরই ঝিরপানির গ্রামপ্রধান প্রভা জাক্সোর স্বামী অজয়ের খোঁজে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চলছে। গত ৩ জুলাই বীরসা ব্লকের ঝিরপানির গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের চালের ব্যাপারে খোঁজ নিতে যান নির্যাতিতা। সেখানে ছিল একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ইস্পাত প্রকল্পের কর্মী অজয়। মহিলাকে সে বলে, “আজ নয়, কাল এসে চাল নিয়ে যেতে”।

অজয়ের কথায় বিশ্বাস করে ওই মহিলা পরের দিন পঞ্চায়েত অফিসে যান। নির্যাতিতার অভিযোগ উদ্ধৃত করে পুলিশ জানায়, সেখানে অজয় এবং তার সহযোগী ওই মহিলাকে একা পেয়ে চালের গোডাউনেই ধর্ষণ করে।

ঝিরপানির ইন্সপেক্টর-ইন-চার্জ রাইজেন মুর্মু জানান, অভিযুক্তরা মহিলাকে প্রাণনাশের ভয় দেখায়। বলে, ধর্ষণের কথা প্রকাশ্যে নিয়ে এলে তাঁকে খুন করা হবে। বাড়ি ফিরে তিনি যেন কাউকেই এই ঘটনার কথা না-জানান। এর পরে কাকার পরামর্শে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতা।

পুলিশ আধিকারিক জানান, মহিলার বক্তব্য রেকর্ড করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শেষ তিন বছরে ওড়িশায় ধর্ষণের ঘটনা ক্রমশ বাড়ছে। স্বরাষ্ট্র বিভাগের রিপোর্ট অনুয়ায়ী, গত ২০১৬ সালে রাজ্যে ২,১৪৪টি ধর্ষণের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে। ২০১৭ এবং শেষ বছর ২০১৮-য় যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২,২২১ এবং ২,৫০২টি। চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চে ধর্ষণের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে ৫৫২টি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here