চণ্ডীগড়: জেলে বসে দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা তো অনেকেই দিয়ে থাকেন, কিন্তু সেই পরীক্ষা যদি ৮২ বছরের কোনো ব্যক্তি দেন তা হলে সেটা খবর হতেই পারে। কিন্তু সেই পরীক্ষা যদি এমন কেউ দেন যিনি এক জন বিখ্যাত মানুষ, তা হলে বিস্ময়ের আর শেষ থাকে না। এই ভাবে খবরের শিরনামীলেন হরিয়ানার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমপ্রকাশ চৌটালা।

শুধু জেল থেকে বসে পরীক্ষা দেওয়াই নয়, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ওপেন স্কুলিং-এর নেওয়া এই পরীক্ষায় তিনি প্রথম ডিভিশনে পাশও করে গিয়েছেন। শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত হরিয়ানার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা ভারতীয় জাতীয় লোক দলের নেতা ওমপ্রকাশ বিগত কয়েক বছর ধরে তিহার জেলে রয়েছেন। গত মাসে এই জেলের মধ্যেই তিনি দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় বসেন।

ওমপ্রকাশের ছেলে তথা বিধায়ক অভয় চৌটালা জানান, তাঁর বাবা পরীক্ষায় ‘এ গ্রেড’ পেয়েছেন। কিন্তু এত বছর পরে কেন দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা দিলেন তিনি, সে ব্যাপারটিও খোলসা করেছেন অভয়। তিনি জানান, “আমার বাবা যখন স্কুলে ছিলেন আমার দাদু তথা প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী দেবী লাল তখন কৃষকদের দাবিদাওয়া নিয়ে আন্দোলন করে জেলে যান। পরিবারের দায়িত্ব নেওয়ার জন্য বাবাকে স্কুল ছাড়তে হয়। তিনি অবশ্য বাকিদের পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য উৎসাহ দেন।”

গত মাসে নাতির বিয়ের জন্য প্যারোলে মুক্ত হয়েছিলেন ওমপ্রকাশ, কিন্তু পরীক্ষা দেওয়ার জন্য প্যারোলের সময়সীমা শেষ হওয়ার আগেই জেলে ফিরে যান তিনি। অভয়বাবু বলেন, এখানে থেমে না থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করারও চেষ্টা করবেন ওম প্রকাশ। তাঁর কথায়, “বাবা জেলের সময় কোনো রকম ভাবে নষ্ট করতে চান না। উনি রোজ জেলের গ্রন্থাগারে গিয়ে পড়াশোনা করেন।”

২০১৩ সালে শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলায় জেল হয় ওম প্রকাশের। একই মামলায় অভিযুক্ত হয়ে জেলেই রয়েছেন তাঁর বড়ো ছেলে অজয়ও।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন