ফের ঝামেলা লাগল শিবসেনা-বিজেপিতে

0
bjp shivsena

মুম্বই: দুই শরিকের মধ্যে বন্ধুত্ব যত না থাকে, তার থেকে যেন বেশি ঝামেলা লাগে। লোকসভা নির্বাচনের পর কয়েক মাস শিবসেনা এবং বিজেপির মধ্যে কোনো ঝামেলার বাতাবরণ ছিল না। ফের যেই ভোট আসছে ওমনি ঝামেলা লাগতে শুরু করেছে দুই শরিকের মধ্যে।

সূত্রের খবর, আসন্ন মহারাষ্ট্র বিধানসভা নির্বাচনে আসন বণ্টন নিয়ে দুই শিবিরে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে। এখনই একা লড়ার কোনো সিদ্ধান্ত কেউই নেয়নি, কিন্তু রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, কিছু দিনের মধ্যে এই ব্যাপারে কোনো চরম সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

বিজেপি সূত্রে খবর, ২৮৮ আসনের মহারাষ্ট্র বিধানসভায় শিবসেনাকে কোনো ভাবেই ১২০টার বেশি আসন ছাড়তে রাজি নয় তারা। এমনটা হলে তা যে শিবসেনার কাছে ‘অপমান’ তা বলাই বাহুল্য। কিন্তু গত কয়েক মাস ধরেই বিজেপি নেতারা শিবসেনা নেতাদের নানা ধরনের মন্তব্যে বেশ অসন্তুষ্ট। প্রথমত মুম্বইয়ের অ্যারে কলোনিতে গাছ কাটা নিয়ে দেবেন্দ্র ফড়নবীশ সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছে শিবসেনা। দ্বিতীয়ত, অর্থনীতি নিয়ে মনমোহন সিংয়ের কথা মেনে চলারও ‘উপদেশ’ শিবসেনা দিয়েছে বিজেপিকে।

আরও পড়ুন ভয়াবহ পরিস্থিতি! ইতিহাসের উষ্ণতম গ্রীষ্ম উত্তর গোলার্ধে

লোকসভা নির্বাচনের ঠিক আগে উদ্ভব ঠাকরের বাসভবন মাতুশ্রীতে এসেছিলেন অমিত শাহ। সেখানে তিনি আশ্বাস দিয়েছিলেন, ভবিষ্যতে নির্বাচনে ৫০-৫০ আসন বণ্টন হবে শিবসেনা এবং বিজেপির মধ্যে। কিন্তু এটা কোনো ভাবেই মেনে নিতে পারছে না রাজ্য বিজেপি। ঝামেলা আরও রয়েছে এবং তা হল মুখ্যমন্ত্রীর পদপ্রার্থী নিয়ে। শিবসেনা খুব চাইছে মুখ্যমন্ত্রীর পদটি উদ্ভবের ছেলে আদিত্য ঠাকরেকে দেওয়া হোক। অন্য দিকে পাঁচ বছর ভালো ভাবেই সরকার চালানোর পর বিজেপি যে শুধু শুধু দেবেন্দ্র ফড়নবীশকে সরাতে চাইবে না তা বলাই বাহুল্য।

এই সব পরিস্থিতি দেখেই রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মত, আসন্ন নির্বাচনে হয়তো দুই শরিকের জোট বেঁধে লড়াই নয়, একে অপরের বিরুদ্ধে লড়াই দেখতে পারে মহারাষ্ট্রবাসী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here