কোভিডের দৈনিক সংক্রমণ নয়, মাপকাঠি হোক শুধুমাত্র গুরুতর অসুস্থতা, বলছেন বিশেষজ্ঞরা

0

নয়াদিল্লি: সব রকম বিধিনিষেধ তুলে দিলে সংক্রমণ বাড়তে বাধ্য। কিন্তু ওমিক্রনের আবির্ভাবের পর দেখা যাচ্ছে যে অন্তত ৯৭ থেকে ৯৮ শতাংশ মানুষের গুরুতর কোনো অসুস্থতা হচ্ছে না। খুব অল্প সংখ্যক মানুষ একটু বেশি অসুস্থ হচ্ছেন এবং হাসপাতালে ভরতি হচ্ছেন।

একশ্রেণির বিশেষজ্ঞ মনে করছেন, সংক্রমণে ওঠানামা এখন চলতেই থাকবে। সে কারণে দৈনিক সংক্রমণের দিকে তাকাতে নারাজ তাঁরা। বিভিন্ন রাজ্য এবং স্বাস্থ্য দফতরের কাছে তাঁদের পরামর্শ, এখন থেকে দৈনিক সংক্রমণকে মাপকাঠি হিসেবে দেখা উচিত নয়। দিনে কতজন গুরুতর অসুস্থ হচ্ছেন এবং কতজনকে হাসপাতালে ভরতি করা হচ্ছে, সেটাই হোক নতুন মাপকাঠি।

ভাইরাসবীদ চন্দ্রকান্ত লহরিয়া ইকনোমিক টাইমসকে বলেন, উদ্বেগের কোনো পরিস্থিতি এখন এই দেশে নেই। তিনি বলেন, “এই রকম পরিস্থিতি আসবেই। আমাদের তৈরি থাকতে হবে। সংক্রমণ কখনও বাড়বে, কখনও কমবে। এখন যে পর্যায়ে অতিমারি রয়েছে, তাতে দৈনিক সংক্রমণের দিকে নজর রাখার কোনো মানে নেই। দিনে গুরুতর অসুস্থ কতজন হচ্ছেন এবং হাসপাতালে কতজন ভরতি হচ্ছেন, শুধুমাত্র সেটাই নতুন মাপকাঠি হওয়া উচিত।”

উল্লেখ্য, সংক্রমণ নতুন করে বাড়লেও গুরুতর অসুস্থ মানুষের সংখ্যা খুবই কম। দিল্লিতে এই মুহূর্তে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৩ হাজার ৯৭৫ জন। এর মধ্যে হাসপাতালে ভরতি আছেন ৮০ জন, অর্থাৎ ২ শতাংশ। তবে দিল্লির স্বাস্থ্যকর্তাদের মতে এর মধ্যে অনেকেই এমন আছেন, যাঁরা হাসপাতালে অন্য সমস্যা নিয়ে চিকিৎসা করাতে এসে আচমকা কোভিড পজিটিভ হয়ে গিয়েছেন।

দিল্লিতে এই মুহূর্তে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছেন ২৩ জন কোভিডরোগীকে, যা মোট সক্রিয় রোগীর ০.৭ শতাংশ। রাজধানীর হাসপাতালগুলিতে মোট শয্যার ৯৮ শতাংশই খালি।

সুতরাং লহরিয়ার কথা যদি মানা হয়, তা হলেই বোঝা যাবে কে করোনার নতুন সংক্রমণ বৃদ্ধি এখন আর উদ্বেগের কোনো ব্যাপার নয়। ছোটোবড়ো সংক্রমণ বৃদ্ধি ঘটতেই থাকবে। এই নিয়েই জীবন এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে আমাদের।

আরও পড়তে পারেন

এক জায়গায় থিতু হয়ে আড়াই হাজারেই থাকল সংক্রমণ, তবে বাড়ছে সুস্থতা

আবার ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট হলেন এমানুয়েল ম্যাক্রো, ইউরোপে স্বস্তি

দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে দহন-তাণ্ডব, চল্লিশ ছুঁল কলকাতা

কিছু জায়গায় কোভিড-গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী, মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন