hafees prosecution usa pakistan

ওয়েবডেস্ক: দু’দিন আগেই মুম্বই হামলার মূল চক্রী হাফিজ সঈদকে ‘সাহেব’ সম্বোধন করে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি বলেছিলেন, যে হেতু হাফিজ সঈদের বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই তাই তাঁর বিরুদ্ধে কোনো রকম ব্যবস্থা নেওয়া যাবে না। ভারত তো বটেই পাক প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য ভালো ভাবে নেয়নি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তাই যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তানকে স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছে যে এই লস্কর নেতার বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নিতেই হবে।

পাকিস্তানের মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশ দফতরের মুখপাত্র হেদার নেউয়ার্ট বলেছেন, হাফিজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেই হবে এবং সেটা তাঁরা বারবার পাকিস্তানকে বলেছেন। তাঁর কথায়, “জঙ্গি সংগঠন লস্কর-এ-তৈবার সঙ্গে যোগসাজশ রাখার জন্য হাফিজ সঈদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ। সম্পূর্ণ আইনানুযায়ী হাফিজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।”

তিনি আরও বলেন, “পাকিস্তানকে খুব স্পষ্ট ভাষায় আমাদের দাবিদাওয়ার কথা বলে দিয়েছি। আমরা হাফিজ সঈদকে একজন জঙ্গি হিসেবেই দেখি। ২০০৮-এর মুম্বই হামলার মূল চক্রী ছিলেন তিনি। ওই হামলার ভারতের পাশাপাশি কয়েক জন মার্কিন নাগরিকেরও মৃত্যু হয়েছিল।”

যুক্তরাষ্ট্র এবং পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কে গত কয়েক মাসে কিছুটা অবনতি হয়েছে। পাকিস্তানে মার্কিন অনুদানও কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কিন্তু নেউয়ার্ট মনে করেন জঙ্গি দমনে পাকিস্তান উল্লেখযোগ্য ব্যবস্থা নিলেই আবার সম্পর্ক উন্নত হবে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন