cpim

ওয়েবডেস্ক: শেষ লোকসভা নির্বাচনে মহারাষ্ট্রের পালঘর লোকসভা নির্বাচনে মাত্র ৭.৭৫ শতাংশ ভোট পেয়েছিলেন সিপিএম প্রার্থী। তবে ৭৬,৮৯০টি ভোট পেয়ে সিপিএম অধিকার করেছিল তৃতীয় স্থান। এ বার আবার বিজেপির সঙ্গে নেই শিবসেনা। তারা প্রার্থী দিয়েছে পৃথক। কিন্তু মাঝখান থেকে আচমকা ঘটে যাওয়া বামপন্থীদের মুম্বই লং মার্চ নামের কর্মসূচিটি প্রায় ঘাড়ের উপর নিশ্বাস ফেলছে বিজেপির।

মহারাষ্ট্রের পালঘরে বরাবরই বামপন্থীরা নিজস্ব একটা ভূমিকা নিয়ে এসেছে প্রতিটা নির্বাচনেই। কিন্তু এ বছরে কৃষক ও আদিবাসীদের দাবি-দাওয়াকে সামনে রেখে আয়োজিত মুম্বই লং মার্চে কয়েক হাজার মানুষ অংশ নিয়েছিলেন এই পালঘর থেকে। যা নিয়ে চিন্তায় রয়েছে খোদ শিবসেনাও। কিন্তু গেরুয়া শিবিরের জোট হালকা হয়ে যাওয়ার পর থেকেই চাপা আতঙ্ক কাজ করছিল বিজেপি নেতৃত্বের মনে। সেই আতঙ্ককে আরও উসকে দিয়েছে শিবসেনার প্রার্থী নির্বাচন। প্রয়াত বিজেপি সাংসদ চিন্তামন ওয়াঙ্কার পুত্র শ্রীনিবাসকে প্রার্থী করেছে তারা। সূত্রের খবর, শিবসেনা নেতৃত্ব এ ব্যাপারে বাম নেতৃত্বের একাংশের সঙ্গে যোগাযোগও করেছিলেন। লড়াইটা যদি ওয়ান ইজ টু ওয়ান হয়, সে ব্যাপারেও চেষ্টা চলেছিল। কিন্তু এ বার সেখানে লড়াই হচ্ছে বহুমুখি। রয়েছেন বহুজন বিকাশ আগাধি, কংগ্রেস, সিপিএম, শিবসেনা এবং বিজেপি প্রার্থী।

নিজেদের ভোটব্যাঙ্ককে এত সহজে বিমুখ করতে চাননি বামপন্থীরা। বিশেষ করে শিবসেনা-বিজেপি জোট ভেঙে যাওয়ার পর সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের মধ্যে আরও প্রসারিত হয়েছে বামপন্থার বীজ। যা ছিল, তা তো আছেই। ২০০৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে চতুর্থ স্থানে থাকা সিপিএম, ২০১৪-তে অতিক্রম করেছে আরও একটা ধাপ। স্বাভাবিক ভাবেই এ বারের উপনির্বাচনে সিপিএম প্রার্থী কিরণ রাজা গাহালা যে দলের আরও এক ধাপ এগোবেন না, তা কে বলতে পারে? বিশেষ করে সেখানে যখন পড়ে রয়েছেন নীলোৎপল বসু, অশোক ধাওলে, মহেন্দ্র সিং, জয়ন্ত পাতিল, মারিয়ম ধাওলে এবং বিধায়ক জে পি গাভিটের মতো সিপিএমের উচ্চ নেতৃত্ব।

গত কয়েক বছরে পালঘর জেলায় সিপিএমের সংগাঠনিক শক্তি হু-হু করে বেড়ে চলেছে। বিশেষ করে সারা ভারত কিষাণসভার ডাকে মুম্বই লং মার্চে এই জেলা থেকে কয়েক হাজার আদিবাসী কৃষক শামিল হওয়ার পর বেড়েছে সিপিএম নিয়ে চর্চা। যে চর্চা কান এড়াচ্ছে না বিজেপিরও।

ওদিকে কৃষকের কানে বাজছে, বুলেট ট্রেন এবং সুপার হাইওয়ের জন্য জমি অধিগ্রহণের সরকারি ঘোষণা!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here