খবর অনলাইন ডেস্ক: মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ তোলাবাজি করে মাসে ১০০ কোটি টাকা ঘরে তুলতে চেয়েছিলেন বলে দাবি করেছেন মুম্বইয়ের প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার পরমবীর সিংহ। মন্ত্রীর বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ তুলে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে ‘পত্রবোমা’ নিক্ষেপ করেছেন পরমবীর। নিজের সম্পর্কে এই গুরুতর অভিযোগকে কেন্দ্র করে এ বার সরব হলেন দেশমুখ-ও।

কী অভিযোগ পুলিশ কমিশনারের?

মুকেশ অম্বানির বাড়ির কাছ থেকে বিস্ফোরক ভরতি গাড়ি উদ্ধারের তদন্তে ত্রুটির অভিযোগ তুলে পুলিশ কমিশনারের পদ থেকে পরমবীরকে সরিয়ে দেয় মহারাষ্ট্র সরকার। মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে লেখা চিঠিতে পরমবীর অভিযোগ করেন, মন্ত্রী দেশমুখ তোলাবাজিতে যুক্ত। এমনকী, অম্বানি কাণ্ডে ধৃত পুলিশ অফিসার সচিন ওয়াজেকেই তোলাবাজির কাজে ব্যবহার করতেন তিনি।

তাঁর অভিযোগ, “প্রতি মাসে ১০০ কোটি টাকা ঘরে তুলতে চেয়েছিলেন দেশমুখ। গত কয়েক মাসে বেশ কয়েক বার ওয়াজ়েকে নিজের বাসভবনে ডেকে এই কাজে সাহায্য করতে বলেন তিনি”।

কী বলছেন মন্ত্রী?

চিঠিটি নিয়ে তুমুল হইচইয়ের মধ্যেই দেশমুখ বিবৃতিতে বলেছেন, “মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা চিঠিটি দেখে অবাক হচ্ছি। চিঠিতে তাঁর বক্তব্য যদি তাঁর নিজের লেখা হয় এবং সত্যি হয়, তা হলে তিনি যে অভিযোগ করেছেন, তার জন্য তিনি নিজেও গুরুতর ভাবে জড়িত। তিনি এফআইআর করলেন না কেন? কেন-ই বা এক বছর সময় ধরে অপেক্ষা করলেন?” নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ প্রসঙ্গে এমনই বেশ কয়েকটি প্রশ্ন তুলেছেন মন্ত্রী।

দেশমুখ সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এবং বলেছেন যে তিনি পরমবীরের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করবেন। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে মহারাষ্ট্রের শিবসেনা-এনসিপি-কংগ্রেস জোট সরকারেও প্রবল বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

কী বলছে বিজেপি?

রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপি মন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি করেছে। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফডনবিস বলেছেন, “আমরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি করছি। তিনি যদি তা না করেন তবে মুখ্যমন্ত্রীকে অবশ্যই তাঁকে সরিয়ে দিতে হবে”। পাশাপাশি নিরপেক্ষ তদন্তের আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেছেন,”পরমবীর সিংয়ের চিঠিতে আরও বলা হয়েছে যে মুখ্যমন্ত্রীকে আগে এ সম্পর্কে অবহিত করা হয়েছিল, তাই কেন তিনি এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করেননি, সেটাও বলতে হবে?”

কী বলছে এনসিপি?

জানা গিয়েছে, মহারাষ্ট্রের জোট সরকার এই ইস্যুতে আগামী সোমবার বৈঠকে বসছে। অন্যদিকে নিজের দলের সদস্যের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ প্রসঙ্গে এনসিপি নেতা শরদ পওয়ার বলেছেন, “ঠিক কোন সময়ে অনিল দেশমুখের বিরুদ্ধে এই অভিযোগগুলি করা হল, সেটা বিবেচনা করতে হবে। এখন কেন? পরমবীর সিংহ বদলি হওয়ার পরে এই সমস্ত অভিযোগ করেছেন কেন”?

প্রবীণ নেতা পওয়ার আরও বলেন, “স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গুরুতর। অভিযোগ ছিল যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পুলিশকে ১০০ কোটি সংগ্রহের নির্দেশ দিয়েছিলেন। অর্থের লেনদেনের বিষয়ে কোনো তথ্য নেই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বা তাঁর কর্মীদের কাছে কোনো টাকা লেনদেন করার তথ্য নেই”।

আরও পড়তে পারেন: নরেন্দ্র মোদীর সফরসঙ্গীরা ‘মুজিব কোট’ পরবেন

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন