passport

ওয়েবডেস্ক: বদলে যেতে পারে চেহারা। এখন থেকে বাড়ির ঠিকানার বৈধ প্রমাণপত্র হিসেবে হয়তো আর গণ্য হবে না পাসপোর্ট। এমনই সিদ্ধান্ত নিতে পারে বিদেশমন্ত্রক।

এখন পাসপোর্টের শেষের পাতায় গ্রাহকের বাড়ির ঠিকানা দেওয়া থাকে, যেটা বাড়ির ঠিকানার বৈধ প্রমাণপত্র হিসেবে কাজ করে। পাসপোর্টের নতুন সংস্করণে শেষের পাতাটি সম্ভবত ফাঁকাই রেখে দেওয়া হবে। বিদেশমন্ত্রকের পাসপোর্ট ডিভিশনের আন্ডার সেক্রেটারি সুরেন্দ্র কুমার বলেন, “নাগরিকদের গোপনীয়তা রক্ষার্থেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।”

নতুন সংস্করণেই এই বদল নজরে আসবে বলে জানিয়েছেন কুমার। তবে শেষ পাতাটি ফাঁকা থাকলেও, এর ফলে পাসপোর্ট অফিস বা অভিবাসন দফতরের কাজে কোনো প্রভাব পড়বে না। কারণ ২০১২ সাল থেকে ইস্যু হওয়া সব পাসপোর্টে একটা বারকোড থাকে। সেটাকে স্ক্যান করলেই পাসপোর্টধারীর যাবতীয় তথ্য পেয়ে যাবেন সংশ্লিষ্ট দফতরের আধিকারিকরা।

তবে নতুন পাসপোর্ট বাজারে এলে পুরোনোগুলি অকেজো হয়ে যাবে এমন ভয় পাওয়ার কোনো দরকার নেই। মন্ত্রক থেকে জানানো হয়েছে, পুরোনো পাসপোর্টগুলি নিজেদের সময়সীমা শেষ হওয়া পর্যন্ত বহাল থাকবে। এর পাশাপাশি পাসপোর্টের রঙেরও বদল আনার চেষ্টা করছে কেন্দ্র। এখন মূলত তিনটে রঙের পাসপোর্ট দেওয়া হয়। সরকারি আধিকারিক এবং সরকারের কাজে বিদেশে যাওয়া ব্যক্তিদের জন্য সাদা রঙের পাসপোর্ট দেওয়া হয়, কূটনীতিকদের জন্য লাল এবং সাধারণ মানুষদের জন্য নীল রঙের পাসপোর্ট দেওয়া হয়। এর পাশাপাশি কমলা রঙকেও নিয়ে আসতে চায় মন্ত্রক।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here