ছবি: ডিএনএ থেকে

নয়াদিল্লি: কংগ্রেস সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী পলাতক ব্যবসায়ী বিজয় মাল্যের উপর জারি হওয়া লুক আউট নোটিশকে দুর্বল করার নেপথ্যে সিবিআইয়েরই এক কর্তার দিকে অভিযোগের আঙুল তুললেন। তিনি ওই সিবিআই কর্তাকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ব্লু আইড বয় হিসাবে উল্লেখ করে বলেন, সিবিআইয়ের জারি করা লুক আউট নোটিশকে লঘু করে মাল্যকে দেশ ছাড়ার সুযোগ করে দিয়েছিলেন ওই সিবিআই কর্তা।

নিজের টুইটার হ্যান্ডলে একটি পোস্টে রাহুল স্পষ্টতই লিখেছেন, ওই সিবিআই কর্তার নাম এ কে শর্মা। যিনি সিবিআইয়ের যুগ্ম অধিকর্তা হিসাবে দায়িত্ব প্রাপ্ত ছিলেন। গুজরাত ক্যাডারের ওই সিবিআই কর্তার নির্দেশেই সে দিন মাল্যর উপর জারি থাকা লুক আউট নোটিশকে লঘু করা হয়। শুধু মাল্য নন, রাহুল অভিযোগ করেছেন, পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের ঋণখেলাপি হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী এবং মেহুল চোকসিকেও ভারত থেকে পালাতে সাহায্য করেছিলেন শর্মা।

Nও

ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ব্যাঙ্ক প্রতারণায় অভিযুক্ত মদ ব্যবসায়ী বিজয় মাল্যকে লন্ডনে পালাতে সহযোগিতা করার অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেস। দলের তরফে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির পদত্যাগ দাবি করা হয়েছে। সংসদের সেন্ট্রাল হলে মাল্যর সঙ্গে তাঁর একান্ত বৈঠক নিয়ে কংগ্রেস-বিজেপি বাকযুদ্ধ চলছে গত তিন দিন ধরে। কংগ্রেসের দাবি, জেটলি জানতেন, মাল্য বিদেশে পালাবেন। তবুও তিনি গোয়েন্দা সংস্থাকে জানাননি।


আরও পড়ুন: এলপিজি ডিস্ট্রিবিউটরশিপ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেফতার বিজেপি নেতা

মাল্যর বিরুদ্ধে ৯,০০০ কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ ওঠার পর সিবিআইয়ের হাতে বর্তায় তদন্তের দায়িত্ব। কিন্তু সেই সিবিআইয়ের এক কর্তার সহযোগিতাতেই মাল্য দেশ ছাড়েন। তবে পুরো ঘটনার নেপথ্যে যে প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকাও রয়েছে, সে অভিযোগও আগেই তুলেছে কংগ্রেস।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন