নয়াদিল্লি: ডাক বিভাগের কিছু অংশের বেসরকারিকারিকরণ করতে চলেছে মোদী সরকার, এমনই অভিযোগ উঠছে বেশ কিছুদিন ধরেই। তার প্রতিবাদ হিসেবে আজ, বুধবার দেশ জুড়ে ডাকা হল ধর্মঘট। ডাক কর্মীদের সংগঠন ন্যাশনাল ফেডারেশন অব পোস্টাল এমপ্লয়িজ় (এনএফপিই) ওই ধর্মঘট ডেকেছে।

এর জেরে পশ্চিমবঙ্গ সার্কলের (পশ্চিমবঙ্গ, সিকিম, আন্দামান-নিকোবর) ডাকঘরগুলিতে পরিষেবা ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা। এনএফপিই-র দাবি, ১০টি কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নও এই ধর্মঘটকে সমর্থন করছে। বিষয়টি নিয়ে কর্তৃপক্ষ কী ব্যবস্থা নিচ্ছেন তা জানতে চেয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সার্কলের চিফ পোস্ট মাস্টার জেনারেল জে চারুকেশীকে ফোন করা হলে তিনি অবশ্য ফোনে মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এনএফপিই-র দাবি, কেন্দ্রের ‘আইটি ২.০’ প্রকল্প মোতাবেক কিছু ব্যবসা ডাক বিভাগের থেকে পুরোপুরি ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্টস ব্যাঙ্কের (আইপিপিবি) হাতে যেতে পারে। ভবিষ্যতে আইপিপিবি-র বিলগ্নিকরণেরও সুযোগ রয়েছে। সে ক্ষেত্রে স্বল্প সঞ্চয় এবং ডাক জীবন বিমার মতো বিভিন্ন প্রকল্পের বিপুল তহবিলের নাগাল পাবে বেসরকারি ক্ষেত্র। অসংখ্য এজেন্টের ভবিষ্যৎ নিয়েও প্রশ্ন উঠবে।

যদিও সচিব পর্যায়ের বৈঠকে সম্প্রতি ডাক বিভাগ আশ্বাস দিয়েছে, কর্পোরেটের হাতে যাবে না ডাক পরিষেবা। কিন্তু এনএফপিই-র দাবি, ‘আইটি ২.০’ প্রকল্প প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত শুধু আশ্বাসের কোনো ভিত্তি নেই। পরিষেবা পেতে গিয়ে গ্রাহকের দুর্ভোগের কথা মানলেও সংগঠনের বক্তব্য, আমজনতার অর্থের সুরক্ষার জন্যই তাঁদের এই আন্দোলন।

আরও পড়তে পারেন: 

পুলিশের সামনে তাঁকে খুনের হুমকি দিয়েছেন দলেরই এক নেতা, মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি তৃণমূল বিধায়কের

আজ হাজিরা না দিলে অনুব্রতর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা, ইঙ্গিত দিল সিবিআই

সামরিক মহড়ার আড়ালে হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে চিন, দাবি তাইওয়ানের বিদেশমন্ত্রীর

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন