মুম্বই: ক্রিকেট খেলা বা তার জন্য প্র্যাকটিস করা ভারতীয় দণ্ডবিধিতে কোনো অপরাধমূলক কাজের মধ্যে পড়ে? অন্তত মুম্বই পুলিশ সেটাই মনে করে।

প্রণব ধানাওয়াড়েকে মনে আছে? এই বছরই শুরুর কথা। স্কুল ক্রিকেটে ১০০০ রান করে বিশ্বরেকর্ড করেন প্রণব। শুরু হয়ে যায় চর্চা, ভারত তার পরবর্তী সচিন তেন্ডুলকরকে পেয়ে গিয়েছে। সেই প্রণবকেই আটক করল পুলিশ। তাঁর অপরাধ তিনি মাঠে হাল্কা ব্যায়াম করছিলেন।

কল্যাণের সুভাষ ময়দান। এই মাঠেই ছোটো থেকেই খেলছেন প্রণব। শনিবার সেখানে একটি হেলিপ্যাড তৈরি করা হয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর নামবেন বলে। ওই হেলিপ্যাডের আশেপাশে নেট প্র্যাকটিস করছিলেন প্রণব এবং আরও কয়েক জন। তখন পুলিশ এসে তাদের প্র্যাকটিস থামিয়ে চলে যেতে বলে। তৎক্ষণাৎ অনুশীলন থামায় প্রণবরা, কিন্তু মাঠ থেকে না বেরিয়ে এক পাশে হাল্কা ব্যায়াম করছিল। তারা এখনও কেন মাঠ থেকে বেরোয়নি জিজ্ঞেস করায়, প্রণব বলে পাঁচ মিনিটের মধ্যেই তারা বেরিয়ে যাবে। এতেই ক্ষেপে যায় পুলিশ। প্রণবের কলার ধরে টেনে বাজারপেট থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রণবের বাবা প্রশান্ত ধানাওয়াড়ের কথায়, “প্রণবকে যখন পুলিশভ্যানে তোলা হচ্ছে আমি তখনই পৌঁছোই। আমাকেও পুলিশভ্যানে তুলে থানায় নিয়ে আসা হয়। আমাদের প্রায় এক ঘণ্টা থানায় আটকে রাখা হয়। কিছুক্ষণ পর স্থানীয় কিছু রাজনৈতিক নেতা আর সাংবাদিকদের হস্তক্ষেপে ছাড়া পাই আমরা।”

পুলিশ অবশ্য কলার ধরে টেনে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছে। বাজারপেট থানার ডিএস সূর্যবংশী বলছেন, “শুধুমাত্র একটা সতর্কতা দিয়েই ওদের ছেড়ে দেওয়া হয়।”

প্রণবের কোচ মোবিন শেখ বলেন, “প্রথমত এখানে কোনো ভালো খেলার মাঠ নেই। এই সুভাষ ময়দানই উঠতি ক্রিকেটারদের মন্দির, মসজিদ সব কিছু। যারা ওকে অপরাধী আখ্যা দিয়ে তুলে নিয়ে গেল, কিছু দিন আগেই তো ওরাই ওকে ঘাড়ে তুলে নাচছিল।” মজার ব্যাপার, যাঁর জন্য এত কাণ্ড, সেই জাভড়েকর হেলিকপ্টারে না এসে পুনে থেকে সড়কেই মুম্বই এসে পৌঁছোন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here