nfa2

ওয়েবডেস্ক: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার কাণ্ডে তথ্য এবং সম্প্রচার মন্ত্রকের কাজে বেজায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। রাষ্ট্রপতির নাম বিতর্কে জড়ানোর জন্য কড়া ভাষায় প্রধানমন্ত্রীর অফিসে চিঠিও দিয়েছে রাষ্ট্রপতি ভবন।

বৃহস্পতিবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের আসরে মাত্র ১১ জনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন রাষ্ট্রপতি। বাকিদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। অন্তত ৫০ জন্য পুরস্কারপ্রাপক এই অনুষ্ঠান বয়কট করেন। বয়কটকারী পুরস্কার প্রাপকদের দাবি, রাষ্ট্রপতি পুরস্কার দেবেন না শুনে তাঁরা অসম্মানিত বোধ করছেন।

এই বিতর্কের জন্য তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রককে কাঠগড়ায় তুলেছে রাষ্ট্রপতি ভবন। রাষ্ট্রপতি ভবনের কয়েক জন আধিকারিকের দাবি, গোটা ঘটনায় বিতর্ক বাড়িয়েছে মন্ত্রকের ভূমিকা, কারণ রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে অনেক দিন আগে থেকেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল যে ১১ জনের বেশি প্রাপককে পুরস্কৃত করতে পারবেন না রাষ্ট্রপতি। ওই আধিকারিকের কথায়, “তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক আমাদের আস্থা ভেঙেছে। মানুষের কাছে বার্তা গিয়েছে যে শেষ মুহূর্তে নিজেদের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে রাষ্ট্রপতি ভবন, যেটা সম্পূর্ণ ভুল এবং এই সংগঠনের নামকে কালিমালিপ্ত করেছে।”

আরও একজন আধিকারিক বলেন, এই ব্যাপারে মার্চেই মন্ত্রকের সঙ্গে বৈঠক করা হয়েছিল। তাঁর কথায়, “এপ্রিলের শুরুতেই মন্ত্রককে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল যে এই অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এক ঘণ্টার বেশি উপস্থিত থাকতে পারবেন না। যাঁরা যাঁরা রাষ্ট্রপতির হাত থেকে পুরস্কার নেবেন, তাঁদের নামের তালিকা দ্রুত তৈরি করার ব্যাপারেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল মন্ত্রককে।”

যদিও এই ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর অফিসের তরফ থেকে এখনও কোনো জবাব পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here