Connect with us

দেশ

কোভিড-টিকার কাজকর্ম খতিয়ে দেখতে সেরাম ইনস্টিটিউটে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

২৮ নভেম্বর সেরাম ইনস্টিটিউটে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। সরেজমিনে টিকা তৈরির কাজ পর্যবেক্ষণ করবেন তিনি।

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: সেরাম ইনস্টিটিউটে গিয়ে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের (Covid-19 vaccine) অগ্রগতি খতিয়ে দেখবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। পুনে-ভিত্তিক সংস্থা সেরাম (SII) ভারতে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকার সম্ভাব্য কোভিড-টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চালাচ্ছে।

সেরামের তৈরি সম্ভাব্য করোনাভাইরাসের (coronavirus) প্রতিষেধক ‘কোভিশিল্ড’ নিয়ে আশাবাদী গোটা দেশ। বৃহস্পতিবার এক ঊর্ধ্বতন সরকারি আধিকারিক জানান, আগামী ২৮ নভেম্বর সেরাম ইনস্টিটিউটে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। সরেজমিনে টিকা তৈরির কাজ পর্যবেক্ষণ করবেন তিনি।

পুনের ডিভিশনাল কমিশনার সৌরভ রাও জানান, “আগামী শনিবার পুনের সেরাম ইনস্টিটিউটে প্রধানমন্ত্রীর পরিদর্শন নিয়ে আমরা একটি বার্তা পেয়েছি। তবে ওই দিন তিনি কখন এখানে আসবেন, সে ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত কিছু জানানো হয়নি”।

Loading videos...

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর পুনে সফরের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন সৌরভ। তিনি জানান, “প্রধানমন্ত্রী পুনেতে সেরামের দফতরে এসে নিজের চোখে ভ্যাকসিন তৈরির কাজকর্ম খতিয়ে দেখতে পারেন। ভ্যাকসিনটির প্রস্তুতি, উৎপাদন এবং বিতরণ পরিকল্পনার বিষয়ে খোঁজখবর নিতে পারেন তিনি”।

প্রসঙ্গত, পরীক্ষামূলক প্রয়োগ, নিরীক্ষণ এবং বিশ্লেষণের জন্য কোভিশিল্ডের প্রস্তুতিতে অনুমোদন দিয়েছে সেন্ট্রাল ড্রাগ স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন (CDSCO)।

এর আগে মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে কোভিড-১৯ মোকাবিলা এবং টিকাকরণ পরিকল্পনা নিয়ে নিজের বিস্তৃত বক্তব্য পেশ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, “ভ্যাকসিন কবে আসবে, তা বিজ্ঞানীরা ঠিক করবেন। ভ্যাকসিন নিয়ে অনেক প্রশ্নের উত্তর এখনও মেলেনি। ভ্যাকসিনের ডোজ অথবা দাম কত হবে, তা স্থির হয়নি। তবে টিকাকরণ নিয়ে আগে থেকেই প্রস্তুত থাকতে হবে”।

আরও পড়তে পারেন: করোনাকালে শিশু এবং প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য হু-র স্বাস্থ্য সতর্কতা

দেশ

২০১৮ সালের আধার রায় পুনর্বিবেচনার আরজি খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

২০১৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বরের রায় পুনর্বিবেচনার আবেদনগুলি খারিজ করেছে সুপ্রিম কোর্ট।

Published

on

সুপ্রিম কোর্ট, আধার কার্ড। প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: কেন্দ্রের আধার প্রকল্পকে সাংবিধানিক ভাবে বৈধ হিসেবে বহাল রেখে ২০১৮ সালের রায়ের পুনর্বিবেচনায় দাখিল হওয়া একগুচ্ছ আবেদন খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। আড়াই বছর আগের রায়ে শীর্ষ আদালত জানিয়ে দিয়েছিল, ব্যাঙ্ক অ্য়াকাউন্ট, মোবাইল নম্বর অথবা স্কুলে ভরতির জন্য আধার বাধ্যতামূলক নয়।

সুপ্রিম কোর্টের তৎকালীন প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র, বিচারপতি একে সিক্রি, এএম খানউইলকর, ডিওয়াই চন্দ্রচূড় এবং অশোক ভূষণের ডিভিশন বেঞ্চ ২০১৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বরের রায়ে প্যান কার্ডের সঙ্গে আধার নম্বর যুক্ত করার ক্ষেত্রে আপত্তি করেনি। তবে বেঞ্চ বলেছিল, আধার কার্ডের প্রয়োগ এমন ভাবে হোক যাতে সাধারণ মানুষের সুবিধা হয়। তবে সেটা করতে গিয়ে আধার জোর করে চাপিয়ে দেওয়া যাবে না।

এখন কী বলছে সুপ্রিম কোর্ট

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এএম খানউইলকরের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ ২০১৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বরের রায় পুনর্বিবেচনার আবেদনগুলি খারিজ করে দেয়। ৪:১ সংখ্যাগরিষ্ঠতায় আবেদনগুলি প্রত্যাখ্যান করা হয়।

Loading videos...

বেঞ্চ বলেছে, “২০১৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বরের চূড়ান্ত রায় পুনর্বিবেচনার জন্য যে আবেদনগুলি দাখিল হয়েছে, তা আমরা পর্যালোচনা করেছি। আমাদের মতে ওই রায়ের পুনর্বিবেচনায় কোনো মামলা হতে পারে না”।

পাঁচ সদস্যের বেঞ্চে বিচারপতি খানউইলকর, চন্দ্রচূড় ছাড়াও ছিলেন অশোক ভূষণ, এস আবদুল নাজির এবং বিআর গাবৌ। তাঁরা বলেন, “আমরা আইন পরিবর্তন করতে পারি না। বৃহত্তর বেঞ্চের পরবর্তী সিদ্ধান্ত অথবা রায়কে যুক্ত করে তা পর্যালোচনার ভিত্তি হিসেবে বিবেচনা করা যাবে না। যে কারণে আবেদনগুলি খারিজ করা হচ্ছে”।

২০১৮-র রায়ে কী বলেছিল সুপ্রিম কোর্ট

আড়াই বছর আগের রায়ে বলা হয়েছিল, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আধার লিঙ্ক করার দরকার নেই। অন্য কোনো বেসরকারি সংস্থাও আধার কার্ড চাইতে পারে না। মোবাইল নম্বরেও আধার লিঙ্ক করার প্রয়োজন নেই। স্কুলে ভরতির জন্য আধার কার্ড দরকার নেই। তবে প্যান কার্ড আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে প্রয়োজন হওয়ায় সঙ্গে আধার নম্বর যুক্ত করার ক্ষেত্রে আপত্তি করেনি শীর্ষ আদালত।

আরও পড়তে পারেন: এখন ঘরে বসেই আধার কার্ডে নিজের নাম, ঠিকানা এবং জন্ম তারিখ আপডেট করুন, কী ভাবে জেনে নিন এখানে

Continue Reading

দেশ

ভোটের আগে নেতাজির জন্মদিবস পালন নিয়ে বিজেপি-তৃণমূল লড়াই

ওই দিন দেশ জুড়ে ‘পরাক্রম দিবস’ পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেপি। তৃণমূল কংগ্রেস চায় ওই দিনটা পালিত হোক ‘দেশপ্রেম দিবস’ হিসাবে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গ দখলে মরিয়া কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপি। তাই রাজ্যের জনগণের মনে জায়গা করে নিতে কোনো সুযোগই তারা হাতছাড়া করতে চায় না। এ বার সেই সুযোগ এনে দিয়েছেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু।

২০২১-এর ২৩ জানুয়ারি পালিত হচ্ছে নেতাজির ১২৫তম জন্মদিন। ওই দিন দেশ জুড়ে ‘পরাক্রম দিবস’ পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেপি। এ কথা ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রের সংস্কৃতি ও পর্যটনমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং পটেল। আর এখানেই গোল বেঁধেছে রাজ্যের শাসকদল তথা বিজেপির চরম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেসের। তৃণমূল কংগ্রেস চায় ওই দিনটা পালিত হোক ‘দেশপ্রেম দিবস’ হিসাবে।

কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বিজেপির বরাবরের অভিযোগ, গান্ধী-নেহরু পরিবারের বাইরে অন্য নেতাদের অবদান কংগ্রেস উপেক্ষা করে গিয়েছে। ধুমধাম করে নেতাজির জন্মদিন পালন করার সুযোগে সেই কথাটাই বিজেপি জনগণকে স্মরণ করিয়ে দিতে চায়।

Loading videos...

খুব হইচই করে ‘পরাক্রম দিবস’ পালন করতে চায় বিজেপি। প্রহ্লাদ পটেল জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কলকাতায় ‘পরাক্রম দিবস’-এর দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন এবং এই উপলক্ষ্যে ন্যাশনাল লাইব্রেরির চত্বরে আয়োজিত এক প্রদর্শনী উদ্বোধন করবেন।

তৃণমূল কী বলছে

তৃণমূল কংগ্রেসের এমপি ডেরেক ও’ব্রায়েন জানিয়েছেন, ২৩ জানুয়ারি দিনটা পশ্চিমবঙ্গ ‘সুভাষ দিবস’ হিসাবে পালন করে আসছে। তিনি আরও জানান, নেতাজির সম্মানে ওই দিনটা জাতীয় ছুটির দিন হিসাবে ঘোষণা করার দাবি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু কেন্দ্র সেই দাবি এখনও মেনে নেয়নি।

দলের আরেক এমপি সৌগত রায় বলেন, কেন্দ্রের ঘোষণা যথেষ্ট নয়। নেতাজির আরও বেশি কিছু প্রাপ্য। তিনি জানান, মুখ্যমন্ত্রী ওই দিন একটি মিছিলে নেতৃত্ব দেবেন।

কেন্দ্রের কর্মসূচি

পটেল জানান, ওই দিন প্রধানমন্ত্রী মোদী আজাদ হিন্দ ফৌজের প্রথম সারির সদস্য এবং তাঁদের পরিবারবর্গকে সংবর্ধনা জানাবেন। বাংলার ২০০ পটুয়া শিল্পী ৪০০ মিটার দীর্ঘ ক্যানভাসে নেতাজির জীবন চিত্রিত করছেন। সংস্কৃতি মন্ত্রকের উদ্যোগে এটি প্রদর্শিত হবে।

কলকাতা ছাড়াও আরও বেশ কিছু জায়গায় নেতাজির ১২৫তম জন্মদিবসের অনুষ্ঠান পালন করা হবে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কটক যেখানে নেতাজি জন্মগ্রহণ করেন এবং তাঁর বাল্য ও কৈশোরজীবন কাটে এবং সুরাতের হরিপুরা গ্রাম যেখানে নেতাজি ১৯৩৮ সালে জাতীয় কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচিত হন,

সারা বছর ধরে নেতাজির জন্মবার্ষিকী পালন করার জন্য কেন্দ্র ৮৫ সদস্যের এক উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমিটি গঠন করেছে। তাতে রয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা, বাংলার বেশ কিছু এমপি, দেশের কিছু মুখ্যমন্ত্রী, ইতিহাসবিদ এবং অন্যান্য বিশিষ্ট মানুষ।

আরও পড়ুন: কৃষি আইন: প্যানেলের তো সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা নেই, তা হলে পক্ষপাত কোথায়? প্রশ্ন শীর্ষ আদালতের     

Continue Reading

দেশ

কৃষি আইন: প্যানেলের তো সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা নেই, তা হলে পক্ষপাত কোথায়? প্রশ্ন শীর্ষ আদালতের

Published

on

supreme court

খবরঅনলাইন ডেস্ক: কৃষি আইন নিয়ে বিবেচনা করার জন্য গঠিত বিশেষজ্ঞ প্যানেলের যাঁরা সমালোচনা করছেন, তাঁদের এক হাত নিল সুপ্রিম কোর্ট। কৃষককুল ও কেন্দ্রের মধ্যে যে অচলাবস্থা চলছে তা নিরসনে শীর্ষ আদালত ওই প্যানেল গড়ে।

কৃষি প্যানেল নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে বুধবার বলেন, “প্রত্যেকের কথা শোনা এবং তার পর আমাদের কাছে রিপোর্ট দেওয়ার ক্ষমতা দিয়েছি ওই প্যানেলকে। তাঁদের তো সিদ্ধান্ত নেওয়ার কোনো ক্ষমতা নেই। তা হলে পক্ষপাতের প্রশ্ন আসছে কোথা থেকে? প্রত্যেকের গায়ে তকমা এঁটে দেওয়া এবং তাঁদের হেয় করার কোনো প্রয়োজন নেই। আর সর্বোপরি এতে আদালতের নামে কুৎসা করা হচ্ছে।”

কমিটির পুনর্গঠন চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে যে আবেদন করা হয়েছে, সে ব্যাপারে সরকারের জবাব চেয়ে এ দিন নোটিশ জারি করে শীর্ষ আদালত।

Loading videos...

তিন কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে হাজার হাজার কৃষক দিল্লি সীমানায় প্রায় দু’ মাস ধরে অবস্থান করছেন। এই পরিস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্ট গত সপ্তাহে কৃষি আইনে স্থগিতাদেশ দেয় এবং আইন পর্যালোচনা করার জন্য চার সদস্যের বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেন।

কী বলল কিসান মহাপঞ্চায়েত

বুধবার ওই আবেদন নিয়ে শুনানির সময় কিসান মহাপঞ্চায়েত বলে, প্রতিবাদী কৃষকরা এবং অকালি দল-সহ বেশ কিছু বিরোধী দল কমিটির সদস্যদের নিয়ে আপত্তি তুলেছেন।

কিসান মহাপঞ্চায়েত আরও বলে, প্রতিবাদীদের অভিযোগ, বিতর্কিত কৃষি আইন নিয়ে চার সদস্য আগেই তাঁদের মত প্রকাশ করেছেন। এই কমিটির অন্যতম সদস্য ভারতীয় কিসান ইউনিয়নের সভাপতি ভুপিন্দর সিং মান গত সপ্তাহে নিজেকে কমিটি থেকে সরিয়ে নিয়েছেন।

প্রধান বিচারপতি কী বললেন

প্রধান বিচারপতি বলেন, “আপনারা কোনো কিছু বিবেচনা না করেই কুৎসা করছেন। কেউ একজন মত প্রকাশ করেছেন…তিনি অযোগ্য হয়ে গেলেন? মান আইন সংশোধন করার কথা বলেছেন…আপনারা বলছেন তিনি আইনের পক্ষে।” কমিটির বিশেষজ্ঞদের সম্পর্কে প্রধান বিচারপতির মন্তব্য, “এঁরা সব কৃষি ক্ষেত্রের বিচক্ষণ দিগ্‌গজ ব্যক্তিত্ব।”

“এ ভাবে আপনারা কাউকে দেগে দিতে পারেন না। মানুষের তো মতামত থাকা উচিত। এমনকি সর্বশ্রেষ্ঠ বিচারকদেরও নিজস্ব মতামত থাকে। তবু তাঁরা তার বিপরীতে গিয়ে রায় দেন”, বলেন প্রধান বিচারপতি বোবদে।

শীর্ষ আদালত বলেছে, “জনগণ ও কৃষকদের স্বার্থেই আমরা বিষয়টি গ্রহণ করেছি। আপনারা যদি না আসতে চান, আসবেন না। লোকের গায়ে তকমা সেঁটে দেবেন না। আমরা এই সমস্যার সমাধান বের করছি।”

আরও পড়ুন: আজ থেকে ছ’টি দেশে কভিডের টিকা পাঠাচ্ছে ভারত

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ফুটবল36 mins ago

এগিয়ে থেকেও কেরলের কাছে ২-১ গোলে হারল বেঙ্গালুরু

রাজ্য4 hours ago

দৈনিক সংক্রমণের হার সামান্য বাড়লেও রাজ্যে দৈনিক মৃত্যু মে’র পর সর্বনিম্ন

দেশ5 hours ago

২০১৮ সালের আধার রায় পুনর্বিবেচনার আরজি খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

রাজ্য5 hours ago

তিন দিনের সফরে রাজ্য এল নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

রাজ্য6 hours ago

তৃণমূলেও ‘কাজ করতে’ পারলেন না শান্তিপুরের ‘কংগ্রেস’ বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য, এ বার গেলেন বিজেপিতে

ক্রিকেট7 hours ago

নির্বাসন কাটিয়ে ১৬ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেই ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ শাকিব আল হাসান

বিনোদন7 hours ago

‘তাণ্ডব’ তদন্তে মুম্বই পৌঁছালো উত্তরপ্রদেশ পুলিশ

ক্রিকেট7 hours ago

খোলা চিঠিতে ভারতকে কৃতজ্ঞতা জানাল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

election commission of india
রাজ্য2 days ago

বুধবার রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

রাজ্য3 days ago

দক্ষিণবঙ্গে দু’ দিনের জন্য তাপমাত্রা বাড়লেও ফের ফিরবে শীত, উত্তরের পাহাড়ে তুষারপাতের সম্ভাবনা

দেশ3 days ago

মহারাষ্ট্র-কেরলে সংক্রমিত ৮০৮৬ বাকি দেশে মাত্র ৫০৭২, ২৩ মে’র পর সব থেকে কম দৈনিক মৃত্যু ভারতে

দেশ3 days ago

মাত্র ১৮ শতাংশ ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার চালিয়ে যেতে পারেন, ৩৬ শতাংশ কমিয়ে দেবেন ব্যবহার: সমীক্ষা

শরীরস্বাস্থ্য3 days ago

হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণগুলি জেনে নিন

দেশ3 days ago

শনিবার নিয়েছিলেন টিকা, রবিবার উত্তরপ্রদেশে মৃত্যু স্বাস্থ্যকর্মীর

antonio lopez habas
ফুটবল3 days ago

জিততে না পারলেও হতাশ নন আন্তোনিও লোপেজ আবাস

কলকাতা3 days ago

আজ থেকে আর প্রয়োজন নেই ই–পাসের, খুলছে বিভিন্ন মেট্রো স্টেশনের একাধিক গেটও

কেনাকাটা

কেনাকাটা15 hours ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা3 days ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা1 week ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা2 weeks ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 weeks ago

ম্যাক্সিড্রেসের নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সুন্দর ম্যাক্সিড্রেসের চাহিদা এখন তুঙ্গে। সামনেই কোনো আনন্দ অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ থাকলে ম্যাক্সি পরতে পারেন। বাছাই করা কয়েকটি ড্রেসের...

কেনাকাটা2 weeks ago

রকমারি ডিজাইনের ৯টি পুঁটলি ব্যাগের কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুমে নিমন্ত্রণে যেতে সাজের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগ নেওয়ার চল রয়েছে। অনেকেই ডিজাইনার ব্যাগ পছন্দ করেন। তেমনই কয়েকটি...

কেনাকাটা2 weeks ago

কস্টিউম জুয়েলারির দারুণ কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুম আসছে। নিমন্ত্রণবাড়ি তো লেগেই থাকে। সেখানে আজকাল সোনার গয়নার থেকে কস্টিউম বা জাঙ্ক জুয়েলারি পরে যাওয়ার...

কেনাকাটা3 weeks ago

রুম হিটারের কালেকশন, ৬৫০ থেকে শুরু

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভালোই শীত চলছে। এই সময় রুম হিটারের প্রয়োজনীয়তা খুবই। তা সে ঘরের জন্যই হোক বা অফিস, বা কোথাও...

কেনাকাটা3 weeks ago

চোখের যত্ন নিতে কিনুন এগুলি, খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অনেকেই আছেন সারা দিনের ব্যস্ততার মাঝে যদিও বা পা, হাত বা মুখের টুকটাক যত্ন নেন, কিন্তু চোখের বিশেষ...

নজরে