Currency

ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রের ক্ষমতায় আসার আগে বিদেশ থেকে কালো টাকা ফিরিয়ে নিয়ে আসার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হতে চললেও এখন পর্যন্ত কী পরিমাণ ফিরল, তা জানতে চেয়েই তথ্য জানার অধিকার আইনে আবেদন করেছিলেন সঞ্জীব চতুর্বেদী। তাঁর প্রশ্নের উত্তরে তদন্ত সংক্রান্ত সুরক্ষার কারণে প্রধানমন্ত্রীর দফতর (পিএমও) কোনো তথ্যই প্রকাশ করল না।

পিএমও-র তরফে জানানো হয়, “আরটিআই আইনের ধারা ৮ (১) (এইচ) অনুযায়ী এ ভাবে সরকার কর্তৃক গৃহীত সকল কর্মকাণ্ড / প্রচেষ্টা সম্পর্কে কোনো তথ্য প্রকাশ তদন্ত প্রক্রিয়াকে বিঘ্নিত করার আশঙ্কা বা অপরাধীদের বিচারের পুরো প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে”।

তবে তথ্য জানার অধিকারে পেশ করা আবেদনের প্রত্যুত্তরে পিএমও জানিয়েছে, এ ব্যাপারে সরকার ইতিমধ্যে বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) গঠন করেছে। তদন্ত প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। উল্লেখ্য, গত ২০১৪ সালের ১ জুন ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস অফিসার সঞ্জীব বিদেশ থেকে উদ্ধার কালো টাকার পরিমাণ জানতে চেয়ে আবেদন করেছিলেন।

আরও পড়ুন: ডিসেম্বরেই দাম বাড়ছে টিভি, এসি-সহ গেরস্থালির বৈদ্যুতিন সরঞ্জামের

অন্য দিকে আমেরিকা কেন্দ্রীয় একটি অর্থিক সংস্থা গ্লোবাল ফিনান্সিয়াল ইন্টিগ্রিটির অনুমান, ২০০৫-২০১৪ সালের মেয়াদে ভারতে আনুমানিক ৭৭০ বিলিয়ন ডলার বা প্রায় ৫৫,০০০০০ কোটির কালো টাকা ঢুকেছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here