CBI Chief Alok Verma

নায়দিল্লি: সিবিআইয়ের নির্বাসিত অধিকর্তা অলোক বর্মার বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। তাঁরই অধ:স্তন রাকেশ আস্থানা এ ব্যাপারে অভিযোগ দায়ের করেন। কেন্দ্রীয় সরকার এবং সংশ্লিষ্ট বিভাগের কাছে ওই অভিযোগ পাঠালে জল গড়ায় সুপ্রিম কোর্টে। কিন্তু অবিশ্বাস্য ভাবে এই ঘটনার তদন্তে নিযুক্ত সংশ্লিষ্ট চিফ ভিজিল্যান্স কমিশন (সিভিসি)-র তদন্তে বর্মার বিরুদ্ধে ওঠা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলেই সূত্রের খবর।

সিভিসি জানিয়েছে, এ ব্যাপারে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তবে প্রশাসনিক ঢিলেমির নমুনা মিলিছে। এ ব্যাপারে সিবিআ্ইয়ের সহ-অধিকর্তা রাকেশ আস্থানা ঠিক যে ভাবে এবং যে স্থান থেকে কোনো এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে অধিকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগপত্র সরকার এবং সিভিসির কাছে পাঠিয়েছিলেন, তার যথাযথ তদন্ত করে সিভিসি। এ ব্যাপারে বর্মা, আস্থানা-সহ সংশ্লিষ্ট প্রত্যেকের সঙ্গেই কথা বলে উৎসে পৌঁছানোর চেষ্টা করে সিভিসি। কিন্তু কোনো ভাবেই বর্মার বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলেই সূত্রের খবর।

উল্লেখ্য, বেশ কয়েক দিন আগেই আস্থানার বিরুদ্ধে ওই একই ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগের তদন্ত চালাচ্ছিলেন বর্মা। পরে ওই সংঘাত এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে কেন্দ্রীয় সরকারকে হস্তক্ষেপ করতে হয়। সিবিআইয়ের নম্বর-১ এবং নম্বর-২ আ্ধিকারিককে ছুটিতে পাঠায় কেন্দ্রীয় সরকার।


আরও পড়ুন: ভুয়ো ডিগ্রি-কাণ্ড: ইস্তফা দিলেন দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে এবিভিপি ছাত্র সংসদ সভাপতি


জানা গিয়েছে, সিভিসির ওই তদন্ত রিপোর্ট মুখবন্ধ খামে সুপ্রিম কোর্টের কাছে জমা করা হয়েছে গত সোমবার। আগামী শুক্রবার সেটি আদালতে খোলা হতে পারে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here