পটনা: নিয়ম কিছুটা শিথিল করলেও উত্তেজনা প্রশমনের নামগগ্ধ নেই। বরং তা উত্তরোত্তর বাড়ছে। শুক্রবার সকালে আবার বিহারে ট্রেনে অগ্নিসংযোগ করলেন আন্দোলনকারীরা। কেন্দ্রের ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্পের বিরোধিতায় জম্মু-তাওয়াই এক্সপ্রেসের কামরায় আগুন ধরানো হয়। দুটি কামরা সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়েছে বলে খবর।

রেল সূত্রে খবর, শুক্রবার সকালে বিহারের মহিউদ্দিননগর স্টেশনে বিক্ষোভ শুরু করে একদল জনতা। সেই সময় স্টেশনে দাঁড়িয়ে ছিল জম্মু-তাওয়াই এক্সপ্রেস। সে খানে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। যাত্রীদের ট্রেন থেকে নামিয়ে তাতে আগুন ধরায় বিক্ষোভকারীরা। ট্রেনের দুটি কামরা সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে যায় বলে খবর।

এ ছাড়া, বালিয়া জেলার একাধিক রেল স্টেশনে ঢুকে চলে ভাঙচুর। বিভিন্ন জায়গায় পুলিশ এবং আন্দোলনকারীদের মধ্যে খণ্ডযুদ্ধ বাধে। বুধবার থেকেই বিহারের গয়া, পটনা, মুজফফ্‌রপুর-সহ নানা জায়গায় চাকরিপ্রার্থীরা রেললাইন অবরোধ শুরু করে ছিলেন। উত্তেজনা বাড়ে বৃহস্পতিবার। বিহারের বক্সার, নওয়াদা, ছপরা, বেগুসরাই, আরা, মুঙ্গের, জেহানাবাদের মতো এলাকায় বিক্ষোভ শুরু হয়। রেলের পাশাপাশি অবরোধ করা হয়েছে জাতীয় সড়ক। টায়ার জ্বালানো, পাথর ছোড়া, গাড়ি ও ট্রেন ভাঙচুরের মতো ঘটনাও ঘটেছে। একই পরিস্থিতি উত্তরপ্রদেশেও।

প্রসঙ্গত, অগ্নিপথ প্রকল্পের ঘোষণা করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। ওই প্রকল্পে সাড়ে ১৭-২১ বছরের তরুণ-তরুণীরা চার বছরের জন্য মাসিক ৩০-৪৫ হাজার টাকার চুক্তির ভিত্তিতে সশস্ত্র বাহিনীর তিন শাখায় (স্থল, নৌ এবং বায়ুসেনা) যোগ দিতে পারবেন। তাঁদের বলা হবে ‘অগ্নিবীর’। সেনায় শূন্যপদ ও যোগ্যতার ভিত্তিতে চতুর্থ বছরের শেষে সেই ব্যাচের সর্বাধিক ২৫ শতাংশ অগ্নিবীরকে সেনায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে। বাকিদের ১১-১২ লক্ষ টাকা হাতে দিয়ে পাঠানো হবে অবসরে। কোনও পেনশন থাকবে না।

তবে প্রবল বিক্ষোভের মধ্যে পড়ে নিয়মের কিছুটা শিথিলতা আনে সরকার। বয়সের ঊর্ধ্বসীমা ২১ থেকে বাড়িয়ে ২৩ করা হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন:

অসুস্থ সনিয়াকে দেখতে গভীর রাতে দিল্লির হাসপাতালে রাহুল গান্ধী

টাকা নেই, দিল্লির দ্বারস্থ পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি

প্রবল বৃষ্টির জেরে একাধিক নদীতে জলস্ফীতি, উত্তরবঙ্গে বন্যা পরিস্থিতি

বেআইনি ভাবে ভাঙচুর নয়, বুলডোজার নীতি নিয়ে উত্তরপ্রদেশ সরকারকে সতর্ক করল সুপ্রিম কোর্ট

তুমুল বিক্ষোভে চাপে পড়ে ‘অগ্নিপথ’-এর নিয়ম কিছুটা শিথিল করল কেন্দ্র

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন