রেলের পরীক্ষার ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ, গয়া স্টেশনে ট্রেনে আগুন চাকরিপ্রার্থীদের

0

গয়া: গত কয়েকদিন ধরেই বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন রেলের চাকরীপ্রার্থীরা। বুধবার সেই আন্দোলনের ঝাঁঝ অনেকটাই বেড়ে গেল। গয়া স্টেশনে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হল ট্রেনে। দাউদাউ করে জ্বলল ট্রেন। বিক্ষোভ প্রশমনে অকুস্থলে পুলিশ পৌঁছলে শুরু হয় ব্যাপক ইটবৃষ্টি। গুরুতর আহত হন দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন।

রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের নন-টেকনিক্যাল পপুলার ক্যাটেগরির গ্রুপ ডি কর্মচারী নিয়োগের অনিয়মের অভিযোগ ঘিরে এ ভাবেই বিক্ষোভে সামিল হলেন চাকরিপ্রার্থীরা।

গত কয়েকদিন ধরে বিহারে রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের নন-টেকনিক্যাল পপুলার ক্যাটাগরির গ্রুপ ডি কর্মচারী নিয়োগের পরীক্ষার ফলাফলে অনিয়মের অভিযোগে বিক্ষোভ শুরু হয়। কিছুদিন আগেই বিহারেরই একটা স্টেশনে ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয়।

তবে সাধারণতন্ত্র দিবসে তা পৌঁছল এক অন্যমাত্রায়। বুধবার দুপুর থেকে কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় গয়া স্টেশন। আন্দোলনকারীদের অভিযোগ, ২০১৯ সালে বিজ্ঞপ্তি জারি হলেও এ পর্যন্ত দ্বিতীয় পর্যায়ের পরীক্ষা নিয়ে কিচ্ছু জানানো হয়নি। প্রথম পরীক্ষার ফলাফলও কেউ হাতে পাননি।

এ দিনের বিক্ষোভে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে দিল্লি-কলকাতা রেলপথ। একের পর এক ট্রেন বিক্ষোভের জেরে থমকে যায়। আর এদিন ক্ষুব্ধ চাকরিপ্রার্থীরা ব্যাপক ভাঙচুর চালান সেখানে। একটি ট্রেনে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। সকাল থেকে অবরোধ চলে পাটনা- গয়া রেলপথে।

ঘণ্টাখানেক ঝামেলার পর ক্রমশ থিতু হয় আন্দোলন। আপাতত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে পরিস্থিতি ফের একবার অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

আরও পড়তে পারেন:

দিল্লির বাতিল করে দেওয়া ট্যাবলো সাধারণতন্ত্র দিবসে প্রদর্শিত হল কলকাতার রাজপথে

তিতিবিরক্ত! ভোটের মুখে দল ছাড়লেন গোয়ার তৃণমূল সাধারণ সম্পাদক

প্রত্যাখ্যান তিন জনেরই! এই ‘পদ্ম’ কি পছন্দ নয় বাংলার?

হাইড অ্যান্ড সিক ফিলস: পার্লের সম্ভারে নতুন সংযোজন

‘উনি গুলাম নয়, আজাদ থাকতে চান,’ বুদ্ধদেবের পদ্ম-প্রত্যাখ্যানকে কুর্নিশ করে গুলাম নবীকে খোঁচা দিলেন জয়রাম রমেশ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন