kolkata journalists are on the street to protest the murder of gauri lankesh

বেঙ্গালুরু: হিন্দুত্ব-বিরোধী প্রবীণ সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশ খুনের প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠল গোটা দেশ। দেশের বিভিন্ন শহরে বুধবার প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করা হয়। কলকাতায় মিছিলে পা মেলান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যে হত্যাকারীদের খুঁজে বার করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া।

বুধবার সাংবাদিক সম্মেলন করে সিদ্দারামাইয়া বলেন, “আমরা খুনিদের খুঁজে বার করবই। বেঙ্গালুরু শহর জুড়ে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। শহরের সব ঢোকার রাস্তায় নজর রাখা হচ্ছে।” ঘটনার তদন্তে আইজি সমতুল্য কোনো অফিসারের নেতৃত্বে বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) গঠন করার কথা বলেন তিনি। এক জন পুলিশ সুপার এই ঘটনার তদন্তকারী অফিসার হবেন, এমনই বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

তদন্তের জন্য সিবিআই এবং মহারাষ্ট্র পুলিশের সঙ্গে সমন্বয়ে কাজ করা হবে বলে জানান সিদ্দারামাইয়া। তবে লঙ্কেশ কোনো ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন কি না, সে ব্যাপারে কিছু বলেননি মুখ্যমন্ত্রী। সেই সঙ্গে মুক্তমনাদের প্রতি আশ্বাস দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সবাইকে পুলিশের তরফ থেকে নিরাপত্তা দেওয়া হবে।

তবে সাংবাদিক খুনে কে জড়িত, সে ব্যাপারে এখনও কিছু না জানা গেলেও, মুখ পুড়েছে কেন্দ্রের। কারণ উগ্র-হিন্দুত্ববাদের বিরোধী হিসেবে পরিচিত ছিলেন লঙ্কেশ। তাই মঙ্গলবার রাতে তাঁর খুনে কোনো হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের হাত দেখছে বিরোধীরা। অন্য দিকে বিজেপির পক্ষ থেকেও ঘটনার নিন্দা করা হচ্ছে।

লঙ্কেশ হত্যার নিন্দা করে সিবিআই তদন্তের দাবি করেছেন কর্নাটকের বিজেপি নেতা অনন্ত কুমার। ঘটনার দ্রুত তদন্তের ব্যাপারে আশাবাদী কেন্দ্রীয় তথ্য এবং সম্প্রচার মন্ত্রী স্মৃতি ইরানিও।

chief minister mamata bandyopadhyay in the procession
মিছিলে মমতা।

এ দিকে সাংবাদিক হত্যার প্রতিবাদে দেশ জুড়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। বেঙ্গালুরু তো বটেই, দিল্লি, মুম্বই, চেন্নাইতেও প্রতিবাদে সরব হয়েছেন সাংবাদিকরা। হত্যার প্রতিবাদে বুধবার সন্ধ্যা ছ’টায় কলকাতার প্রেস ক্লাব থেকেও মোমবাতি মিছিল বের করেন সাংবাদিকরা। কলকাতার সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠন ওই মিছিলে শামিল হন। মিছিলে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তথ্যমন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন। মিছিল মেয়ো রোড, জওহরলাল নেহরু, রানি রাসমণি অ্যাভেনিউ হয়ে গান্ধীমূর্তির পাদদেশে শেষ হন। সাংবাদিকদের পাশাপাশি নিন্দায় সরব বলিউডও। হত্যার প্রতিবাদে একটি টুইট করেন শাবানা আজমি, জাভেদ আখতার, শেখর কাপুর, রেনুকা সাহানে, শিরিশ কুন্দর, অশোক পণ্ডিত এবং আরও অনেকে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পশ্চিম বেঙ্গালুরুর রাজ্যেশ্বরীনগরে তাঁর বাড়ির গাড়িবারান্দায় গৌরীকে গুলি করা হয়। গৌরী যখন সবে তাঁর কর্মক্ষেত্র থেকে ফিরে বাড়িতে ঢুকতে যাচ্ছিলেন ঠিক তখনই কিছু অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি তাঁকে খুব কাছ থেকে গুলি করে। তিনটি বুলেট তাঁর শরীরে লাগে, তার মধ্যে একটি কপালে। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here