Arun Ferreira and Vernon Gonsalves

ওয়েবডেস্ক: সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে পুনে পুলিশের হাতে গ্রেফতার ৫ সমাজকর্মীকে গৃহবন্দি করে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। সেই মেয়াদ শেষ হয় শুক্রবারই। যে কারণে সমাজকর্মী অরুণ ফেরেইরা, ভার্নন গঞ্জালভেজ এবং সুধা ভরদ্বাজ বোম্বে হাইকোর্টে গৃহবন্দির মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য আবেদন জানান। কিন্তু উচ্চ আদালত সেই আবেদন খারিজ করে দেয়। তাঁদের জামিনের আবেদন করেন পুনে সেশন কোর্টে। জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ার পরই পুনে পুলিশ পুনরায় গ্রেফতার করে দুই সমাজকর্মীকে।

জানা গিয়েছে, দুই সমাজকর্মী অরুণ ফেরেইরা এবং ভার্নন গঞ্জালভেজকে শুক্রবার গ্রেফতার করেছে পুনে পুলিশ। তাঁদের বিরুদ্ধে ভিমা কোরেগাঁও হি্ংসার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। এমনকী, মাওবাদীদের সঙ্গে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডের প্রস্তুতিতেও জড়িত থাকার তথ্য পেয়েছে পুলিশ। এর আগেও ভার্ননকে মুম্বই এবং ফেরেইরাকে থানে থেকে গ্রেফতার করেছিল পুনে পুলিশ।

একই সঙ্গে এ দিন বোম্বে হাইকোর্ট সমাজকর্মী গৌতম নবালখা এবং আনন্দ তেলতুম্বদের এফআরএই বাতিলের আবেদনটিকেও আগামী ১ নভেম্বর পর্যন্ত স্থগিত রাখে। যার ফলে আগামী ১ নভেম্বর পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন নিরাপত্তা পাবেন নবালখা। অন্য দিকে গত বৃহস্পতিবার হায়দরাবাদ হাইকোর্ট আগামী তিন সপ্তাহের জন্য আরও এক সমাজকর্মী ভারভারা রাওয়ের গৃহবন্দি থাকার মেয়াদ বাড়িয়েছে।

উল্লেখ্য, গত জুন মাসে ছয় সমাজকর্মী রোনা উইলসন, সুধীর ধাওয়ালে, শোমা সেন, সুরেন্দ্র গাডলিং, মহেশ রাউত এবং রানা জেকবকে আটক করে পুনে পুলিশ। তাঁদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতেই ভিমা কোরেগাঁও হিংসায় জড়িত থাকার অভিযোগে ভরদ্বাজ, গঞ্জালভেজ, নবালখা, ফেরেইরা এবং ভারভারাকে গ্রেফতার করে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here